fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

কৃষিবিলের সমর্থনে, কৃষকদের স্বার্থে ডেবরায় সভা করলেন বিজেপি নেত্রী লকেট চ্যাটার্জি

তারক হরি, পশ্চিম মেদিনীপুর: কৃষকদের স্বার্থে কেন্দ্রীয় সরকারের নতুন বিল নিয়ে  পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার ডেবরা ব্লকের রাধামোহনপুরে একটি কৃষিসুরক্ষা মঞ্চে বক্তব্য রাখেন রাজ্য কমিটির সাধারন সম্পাদিকা মনোনীয়া লকেট চ্যাটার্জি। মোদি সরকার যে নতুন বিল পাশ করেছে, তা সাধারণ মানুষ ও কৃষকদের স্বার্থেই পাশ করা হয়েছে তা তিনি উপস্থিত হয়েই তাঁর স্বভাব সূলভ বক্তব্যে পরিষ্কার ভাবে বুঝিয়ে দিয়েছেন।

তিনি উপস্থিত জনসভায় শাসক শ্রেণীকে একহাতে নিয়ে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন , বর্তমান সরকার কৃষকদের ভুল বোঝানো থেকে শুরু করে, তৃণমূল নেতা, কর্মীদের দিন কে দিন ভোগ বিলাসিতা জীবন যাপন থেকে শুরু করে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট, একটার পর একটা তোপ দেখেছেন। শাসক শ্রেণীর কৃষি সুরক্ষা বিলের বিরোধিতা নিয়ে তিনি মঞ্চে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, ” কৃষি সুরক্ষা বিল মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিজী কৃষি ও কৃষকের স্বার্থেই পাশ করেছেন, কিন্তু তৃণমূল সরকার কৃষকদের ভুল বোঝাচ্ছে। ওরা বলছে কৃষকেরা আত্মহত্যা করবে! কৃষকদের দুর্ভিক্ষ হবে! আমরা জানি দুর্ভিক্ষ কাদের হবে।

 আরও পড়ুন: বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি মুকুল রায়কে উষ্ণ অভ্যর্থনা বর্ধমানে

তৃণমূল সরকার বিলের বিরোধিতায় পথে নেমেছে। আসলে চাষিদের স্বার্থে না, ওরা রাস্তায় নেমেছে দালালি আর ফড়েদের জন্য। কালো বাজারির জন্য, কারণ কালো বাজার না থাকলে তৃণমূলের ঘরে টাকা যাবে কী করে? কৃষকদের আবার ভুল বোঝাচ্ছে এম এস পি তুলে দেওয়া হয়েছে বলে। এটা ভুল রটনা করছে, কৃষকদের এম এস পি নিরাপদ আছে, আর নিরাপদই থাকবে।

সাধারণ কৃষকদের এত দিন মমতা সরকার যে বাঁধনে বেঁধে রেখেছিলেন, সেই বাঁধন মোদি সরকার খুলে দিয়েছেন। কারণ কৃষকরা হচ্ছে আমাদের দেশের ভবিষ্যৎ। ২০১১ সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সিঙ্গুরে কৃষকদের ঘাড়ে বন্দুক রেখে মুখ্যমন্ত্রী হয়েছিলেন, আজকে সেই কৃষকেরা চোখের জল ফেলছেন, তাদের কিছু হয়নি, উন্নয়ন হয়েছে একমাত্র তৃণমূল সরকারের আর ওদের নেতা মন্ত্রীদের। আগামী ২০২১ কৃষকরা বুঝে গেছেন ভারতীয় জনতা পার্টি সরকার আসছে। এবার একসাথে আমরা কৃষকদের হাতে হাত ধরে সোনার বাংলা তৈরি করব।

চারিদিকে তৃণমূল আজ দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়েছে, সে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা হোক, উজ্জ্বলা যোজনা হোক বা একশো দিনের কাজই হোক দুর্নীতিতে একের পর এক তৃণমূল নেতা কর্মীদের নাম জড়িয়েছে। প্রায় ৭৪ লক্ষ বাংলার কৃষক কৃষি যোজনার টাকা ছয়-ছয় বার পাওনা টাকা থেকে বঞ্চিত হয়েছেন, আজ মাননীয়া সেই টাকা দাবী করছেন নিজেদের পকেট ভরানোর জন্য। আমরা ভারতীয় জনতা পার্টি আগামী দিন কৃষকদের স্বার্থে লড়বো, আমরা এক নতুন বাংলা তৈরী করব, আমরা পথে নেমেছি আগামী দিন মোদীজীর নেতৃত্বে সোনার বাংলা গড়বো।”

এই দিনের সভায় উপস্থিত ছিলেন ঘাটাল সাংগঠনিক জেলার সভাপতি মাননীয়া অন্তরা ভট্টাচার্য্য, তন্ময় দাস, তন্ময় ঘোষ ও  রাজু আড়ি এবং মোহন সিং সহ জেলা ও মণ্ডল কমিটির অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

 

Related Articles

Back to top button
Close