fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

স্বপ্ন ডাক্তার হওয়ার, জীবন সংগ্রামে লিপ্ত হয়েও মাধ্যমিকে ‘স্টার ইনিংস’ দীপার

দিব্যেন্দু রায়,কাটোয়া: ঃ দারিদ্রের সঙ্গে লড়াই করে মাধ্যমিকে তাক লাগানো রেজাল্ট করল কাটোয়া পুরসভার ১১ নম্বর ওয়ার্ড এলাকার ঘোষহাট দক্ষিণপাড়ার বাসিন্দা দীপা পাল । কাটোয়ার পানুহাট রাজমহিষী দেবী উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী দীপার প্রাপ্ত নম্বর ৬৬০। এবারের মাধ্যমিকে স্কুলের মধ্যে এটাই সেরা নম্বর । দীপা জানিয়েছে,সে চিকিৎসক হতে চায়। তাই বিজ্ঞান বিভাগে ভর্তি হবে বলে ঠিক করেছে। কিন্তু পরিবারের অভাবের কারনে তার এই স্বপ্ন পুরন হবে কিনা এনিয়ে সংশয়ে রয়েছে দীপার বাবা-মা ।

জানা গেছে, দীপারা দুই ভাই বোন । সে বড় । ভাই শুভজিৎ চতুর্থ শ্রেনীর ছাত্র । ঘোষহাট দক্ষিনপাড়ার একটি ছোট্ট ঘরে তাদের বসবাস । দীপার বাবা দিলীপ পাল কাটোয়ার একটি দোকানে কাজ করেন। খুব অল্প বেতন তাঁর ৷ তাতে সংসার চলে না । তাই সংসার চালানোর জন্য কাগজের প্যাকেট তৈরি করে বিক্রি করেন দীপার মা সুজিতাদেবী । পড়াশোনার ফাঁকে মাকে সহযোগিতা করে দীপা । পরিবারের অভাবের কারনে দীপার কোনও টিউশন জোটেনি বলে জানা গেছে ।

তা সত্ত্বেও সে মাধ্যমিকে শতকরা ৯৪ শতাংশের বেশি নম্বর পেয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছে ।
দীপার প্রাপ্ত মোট নম্বর ৬৬০ । তার মধ্যে সে বাংলায় পেয়েছে ৯৬, ইংরেজিতে ৯০, অঙ্কে ৯১, ভৌতবিজ্ঞানে ৯৬, জীবনবিজ্ঞানে ৯৪, ইতিহাসে ৯৪ এবং ভূগোলে ৯৯ নম্বর । দীপার মা সুজিতাদেবী বলেন, ” মেয়েটার ছোট থেকেই লক্ষ্য ডাক্তার হওয়ার । কিন্তু আমাদের এই সামান্য রোজগারে নিজেদের পেট চালিয়ে মেয়েকে কতদূর পড়াতে পারবো জানিনা ।”

Related Articles

Back to top button
Close