fbpx
কলকাতাহেডলাইন

সন্তানমৃত্যু থেকে অর্থকষ্টের ধাক্কায় মহালয়ার সকালে টালিগঞ্জে আত্মহত্যা দম্পতির

অভীক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা: মহালয়ার দিন মর্মান্তিক পরিণতি হল এক দম্পতির। বৃহস্পতিবার  দুপুরে চারু মার্কেট থানা এলাকার টালিগঞ্জের সিএমডি আবাসনে উদ্ধার হল অরিজিত দত্ত ও সুপর্ণা দত্তের ঝুলন্ত দেহ। দেহের পাশ থেকে একটি সুইসাইড নোটও উদ্ধার হয়েছে। যেখানে লেখা, “আমাদের মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়।” মর্মান্তিক এই ঘটনায় শোকস্তব্ধ পরিবার।

পরিবার সূত্রে খবর, বেশ কিছু বছর আগে ভালবেসে বিয়ে করেন অরিজিৎ ও সুপর্ণা। তাদের একটি ফুটফুটে শিশুসন্তানও হয়েছিল। গাড়ি চালিয়ে বেশ ভালই রোজগার করে দিন গুজরান হচ্ছিল তাদের। কিন্তু আচমকাই সমস্ত কিছু যেন ওলটপালট হয়ে যায়। অসুস্থ হয়ে পড়ে তাঁদের একমাত্র শিশুসন্তান। অনেক হাসপাতালে দৌড়াদৌড়ি করেও তাদের সন্তানকে তারা বাঁচাতে পারেননি। মাস চারেক আগে মৃত্যু হয় একমাত্র সন্তানের।

[আরও পড়ুন- করোনায় মৃতদের অস্থি-চিতা-ভস্ম সংগ্রহ করতে বিশেষ পাত্র দিচ্ছে পুরসভা]

এই শোকের ধাক্কা কাটিয়ে ওঠার আগেই আরও বিপদ বেড়ে যায় দম্পতির। লকডাউনের জেরে ধীরে ধীরে রোজগার কমতে থাকে। লকডাউনের কারণে গত ৫ মাস ধরে সেই গাড়ি বসে থাকায়  ব্যাঙ্কে ইএমআই শোধ দিতেও পারছিলেন না অরিজিৎ। সমস্ত জমানো পুঁজিও শেষ হয়ে আসছিল। ফলে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে মহালয়ার সকালে একসঙ্গে জীবন শেষ করে দেন ওই দম্পতি।

 

Related Articles

Back to top button
Close