fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

মালদায় করোনা হাসপাতালের দুই চিকিৎসক সহ পাঁচ নার্স কোয়ারেন্টাইনে

মিল্টন পাল, মালদা: করোনা সংক্রমনের জেরে দেশ জুড়ে লকডাউন। আর এরই মধ্যে রাজ্যে সরকারের উদ্যোগে মালদায় শ্রমিক আসার পর ১৩জন করোনা পজেটিভ দেখা দিয়েছে। এদের মধ্যে ১১জনের চিকিৎসা চলছে মালদার নারায়নপুরে কোভিড হাসপাতালে। তাদের সাতদিন চিকিৎসার করার পর ১৪ দিনের কোয়ারান্টাইনে ঢুকলেন দুই চিকিৎসক ও পাঁচ জন নার্স।

 

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, চলতি মাসের ৬ তারিখে রাজস্থান থেকে ২৭৯ জন শ্রমিক মালদায় ফিরে আসে। তাদের বেশিরভাগের বাড়ি মালদার হরিশ্চন্দ্রপুর এলাকায়। তারা ফিরে আসার দিনই জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাদেরকে নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এরপর তাদেরকে হোম করেন্টিনে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়। কিন্তু জেলা প্রশাসনের নির্দেশকে উপেক্ষা করে এলাকার বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেড়াতে থাকে। এরই মধ্যে ভিন রাজ্য ফেরত শ্রমিকের করোনা পজিটিভ পাওয়া যায়। আর এরপর থেকেই তাদেরকে চিকিৎসার জন্য মালদার নারায়ণপুরে কোভিড হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে। এমতাবস্থায় ২ চিকিৎসক ও ৫ জন নার্স ওই হাসপাতালে তাদেরকে চিকিৎসা করছিল। সাতজন করে টিম করেই মূলত তাদের চিকিৎসা করা হচ্ছিল। সোমবার তাদেরই একটি দলের দুই চিকিৎসক ও পাঁচজন নার্স সরকারি ভাবে মালদা শহরের বিবেকানন্দ যুব আবাসনে তাদের কোয়ারান্টাইনে রাখা হয়েছে। নারায়নপুরের কোবিড হাসপাতালে প্রথম চিকিৎসা করেছেন এই সাত জনের টিম। এখন তাঁরা ১৪ দিন কোয়ারান্টাইনে থাকবে।

 

দ্বিতীয় চিকিৎসক নার্সের টিম চিকিৎসা করছেন কোভিড হাসপাতালে। তাদের দেখভালের জন্য ২০ জন কর্মী রয়েছেন। এছাড়াও মেডিকেলের ল্যাবে ও হাসপাতালে কর্মরত ৪২ জন কর্মী রয়েছে। যারা সেখান থেকেই চিকিৎসা পরিষেবা চালিয়ে যাচ্ছেন। এ বিষয়ে স্বাস্থ্য দপ্তরের কোনও প্রতিক্রিয়া না পাওয়া গেল মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সহকারী অধ্যক্ষ অমিত দাঁ জানান, এখনো পর্যন্ত মোট ২৭৮৯ জনের লালারসের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এদের মধ্যে ১৩জন পজেটিভ। ১১জনের চিকিৎসা চলছে মালদা কোভিড হাসপাতালে। আমরা আমাদের স্বাস্থ্য দপ্তরেরর নির্দেশ অনুযায়ী কাজ করছি।

Related Articles

Back to top button
Close