fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

জেলায় রেল পরিসেবা সচল রাখতে ট্রেন চালাতে উদ্যোগী পূর্ব রেলের মালদা ডিভিশন কর্তৃপক্ষ, চিঠি দেওয়া হল নবান্নে

মিল্টন পাল,মালদা: জেলায় রেল পরিসেবা সচল রাখতে গৌড় এক্সপ্রেস ট্রেন চালাতে উদ্যোগী পূর্ব রেলের মালদা ডিভিশন কর্তৃপক্ষ। চিঠি দেওয়া হল নবান্ন এবং রেল বোর্ডে। মালদায় করোনা সংক্রমনের জের কিছুটা কমতেই গৌড় এক্সপ্রেস ট্রেন কবে থেকে চালু হবে সেদিকেই তাকিয়ে এখন মালদা জেলার মানুষ। জেলার গুরুত্বপূর্ণ শিয়ালদহ গামী গৌড় এক্সপ্রেস ট্রেন।

পূর্ব রেলের মালদার ডিআরএম যতীন্দ্র কুমার জানিয়েছেন , গৌড় এক্সপ্রেস সহ বেশ কয়েকটি ট্রেন চালু করার ব্যাপারে রেলমন্ত্রীকে জানানো হয়েছে। রাজ্য এবং কেন্দ্রের সবুজ সংকেতের পরই এই ট্রেন চালু করা হবে। করোনা আবহের মধ্যে কলকাতা যাওয়ার আরও একটি গোয়াহাটি – ব্যাঙ্গালোর ট্রেন চালু হতে চলেছে । যা মালদা টাউন স্টেশনের ওপর দিয়েই কলকাতা যাবে। আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে এই ট্রেনটি চালু হবে বলে জানিয়েছে মালদার ডিআরএম যতীন্দ্র কুমার। এদিন ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে রেল মন্ত্রকের একটি ভার্চুয়াল মিটিং হয়। সেই মিটিং-এ যুক্ত ছিলেন  পূর্ব রেলওয়ে মলদা ডিভিশন কর্তৃপক্ষ। এরপরই এদিন মালদা ডিআরএম যতীন্দ্র কুমার একটি সাংবাদিক বৈঠক করেন।

তিনি বলেন, করোন আবহের মধ্যে কলকাতা থেকে উত্তরবঙ্গগামী শুধুমাত্র একটি এক্সপ্রেস পদাতিক ট্রেন চলছে। এবার আরো একটি এক্সপ্রেস ট্রেন চলার উদ্যোগ নিয়েছে রেলমন্ত্রক। সেটি হল গোয়াহাটি – বেঙ্গালুরু এক্সপ্রেস। যা সপ্তাহে তিনদিন মালদা টাউন স্টেশনে দাঁড়াবে । এই ট্রেনে করে কলকাতা এবং উত্তরবঙ্গে যাওয়ার সুযোগ পাবেন যাত্রীরা।

ডিআরএম যতীন্দ্র কুমার বলেন, এই দুটি ট্রেনের পাশাপাশি দিল্লি এবং ভাগলপুর যাওয়ার আরও দুটি ট্রেন চালু হচ্ছে । এতদিন জেনারেল কামরা যাত্রীদের ঠাসাঠাসি করে যেতে হতো । কিন্তু করোনা আবহের কারণে এবার থেকে জেনারেল কামরাগুলিতেও রিজার্ভেশনের মতোন সুযোগ পাবেন যাত্রীরা । জেনারেল কামরার প্রতিটি আসনে একজন করে মোট ৪ জন যাত্রী বসার সুযোগ থাকবে। জেনারেল কামরা মাঝপথে টিকিটবিহীন কোন যাত্রী উঠতে পারবে না। এজন্য রেলের ওই কামরাগুলিতে অতিরিক্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। যদিও করোণা সংক্রমণের জেরে যাত্রীবাহী ট্রেনের আয় অনেকটা কমেছে। মাসে দেড় থেকে দুই কোটি টাকা লোকসানের মুখে পড়তে হয়েছে পূর্ব রেলের মালদা ডিভিশন কর্তৃপক্ষকে। যদিও পণ্যবাহী ট্রেন চলাচলের ক্ষেত্রে তুলনামূলক ক্ষতির পরিমাণ কম রয়েছে।

মালদা মার্চেন্ট চেম্বার অফ কমার্সের সম্পাদক জয়ন্ত কুন্ডু জানিয়েছেন , পদাতিক ট্রেন চললেও টিকিট পাওয়া যাচ্ছে না। তাই ব্যবসায়ীদের গাড়ি ভাড়া করে অথবা বাসে করে কলকাতায় যেতে হচ্ছে। গৌড় এক্সপ্রেস ট্রেনের চাহিদা বরাবরই রয়েছে মালদা সহ দুই দিনাজপুর জেলায়। সে ক্ষেত্রে যদি রাজ্য এবং কেন্দ্র সরকার গৌড় এক্সপ্রেস ট্রেনটি চালু করার উদ্যোগ নেয় , তাহলে ব্যবসায়ী থেকে অসুস্থ রোগীদের ক্ষেত্রে অনেকটাই সুবিধা হবে। এব্যাপারে খুব শীঘ্রই রেল মন্ত্রক এবং মুখ্যমন্ত্রীর কাছে চিঠি লিখে আবেদন জানানো হবে।

Related Articles

Back to top button
Close