fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

মালদায় রবীন্দ্র জয়ন্তীতে জেলা পুলিশের করোনা সচেতন প্রচার

মিল্টন পাল,মালদা: রবীন্দ্র জয়ন্তী পালনের মধ্য দিয়ে করোনা সম্বন্ধে মালদার মানুষকে সচেতন করল জেলাপুলিশ। শুক্রবার শহরের পোষ্ট অফিস মোড় থেকে ট্যাবলো সহকারে সমাজিক দূরত্ব বজায় রেখে মিছিলের আয়োজন করা হয়। এরপর রবীন্দ্র মূর্তিতে গিয়ে মালা দেন। এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জেলার পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া সহ অন্যান্য আধিকারিকেরা।

করোনা সংক্রমনের জেরে লকডাউন ইতিমধ্যেই মাসখানেকের পার হয়েছে। ইতিমধ্যেই সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বিভিন্ন দোকানপাট খোলার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পুলিশের পক্ষ থেকে এদিন রবীন্দ্রজয়ন্তী পালন করা হয়।এদিন শহরের পোস্ট অফিস মোড় থেকে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়। পথে যেতে যেতে করোনা মোকাবেলা কিভাবে করা যায় সে বিষয়ে মানুষকে সচেতন করা হয়।পাশাপাশি ওই শোভাযাত্রা থেকেই পথচলতি মানুষদের মুখে মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে হাত পরিষ্কার করানো হয়। পাশাপাশি মাইকিং করে মানুষকে সচেতন করা হয়। এরপর শহরের রবীন্দ্র এভিনিউ এলাকায় রবীন্দ্র মূর্তিতে মাল্যদান করে রবীন্দ্রজয়ন্তী পালন করা হয় জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে।

এদিন জেলার পুলিশ সুপার অলক রাজোরিয়া জানান, করোনা মোকাবিলায় সব মানুষকেই সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে কাজ করতে হবে। সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে করোনা মোকাবিলায়। এদিন রবীন্দ্র জয়ন্তীর মধ্য দিয়ে করোনা মোকাবেলায় মানুষকে সচেতন করা হয়েছে। গোটা শহর জুড়ে এই সচেতন করা হয়।

পাশাপাশি এদিন বার্লো বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় সোশ্যাল সাইটের মাধ্যমে রবীন্দ্রজয়ন্তী পালন করা হয়। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা দীপশ্রী মজুমদার জানান, প্রতিবছর আমাদের বিদ্যালয় রবীন্দ্রজয়ন্তী পালন হয়ে আসছে। এবার লকডাউনের জেরে স্কুল বন্ধ রয়েছে। তবে ছাত্র-ছাত্রীদের সোশ্যাল সাইটের মাধ্যমে পড়াশোনা করানো হচ্ছে। আর এই দিকে নজর রেখেই ইউটিউব এর মাধ্যমে এদিন আমরা রবীন্দ্রজয়ন্তী পালন করেছি।

কারণ কোনওভাবেই এই দিনটিকে ভুলে যাওয়া যায়না। আর এতে সমস্ত শিক্ষক-শিক্ষিকা ও ছাত্র-ছাত্রীদের অনুমতি নিয়েই এই রবীন্দ্রজয়ন্তী পালন করা হয়েছে সোশ্যাল সাইটের মাধ্যমে।

Related Articles

Back to top button
Close