fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

পুজো নিয়ে অনিশ্চয়তায় মালদা রামকৃষ্ণ মিশন, করোনায় আক্রান্ত কুমারীর পরিবার সহ ২ মহারাজ

মিল্টন পাল,মালদা: করোনা আবহে মালদার রামকৃষ্ণ মিশনের দুর্গাপুজো নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে। সম্প্রতি করোনায় আক্রান্ত হয়েছে কুমারী ও তার পরিবার। পাশাপাশি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন রামকৃষ্ণ মিশনের মঠাধ্যক্ষ স্বামী ত্যাগরুপানন্দ মহারাজ। কিন্তু এবারে মালদার রামকৃষ্ণ মিশনে বেলুড় মঠ থেকে আগত দুই প্রিয়ানন্দ মহারাজ এবং সিদ্ধ চৈতন্য মহারাজ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। ফলে রামকৃষ্ণ মিশনের দুর্গাপুজো কিভাবে সম্পন্ন হবে তা নিয়ে রীতিমতো অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে।

মালদা শহরের বাঁধরোড এলাকায় অবস্থিত রয়েছে রামকৃষ্ণ মিশনটি। সেখানেই রামকৃষ্ণ এবং ছাড়া সারদাদেবীর তীর্থধাম রয়েছে। প্রতি বছরের মতো দুর্গাপুজো উপলক্ষে ধূমধাম করে পালিত হয় উৎসব। এবং সেই পুজোকে ঘিরে সাধারণ ভক্তদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা দেখা যায়।অষ্টমীতে রামকৃষ্ণ মিশনে কুমারী পুজো দেখার জন্য সকাল থেকেই হাজারো ভক্তেরা ভিড় করেন। কিন্তু এবার করোনা আবহের কারণে চরম সংকট অবস্থা দেখা দিয়েছে রামকৃষ্ণ মিশনে। ইতিমধ্যে যাকে কুমারী পুজোয় দেবী হিসেবে পূজিত করা হবে, তার পরিবার করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

পাশাপাশি রামকৃষ্ণ মিশনের অধ্যক্ষ স্বামী ত্যাগরূপানন্দ মহারাজ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তারপরেও পুজো নিয়ে খানিকটা নিশ্চয়তা ছিল কর্তৃপক্ষের মধ্যে। কিন্তু এবারে রামকৃষ্ণ মিশনে বেলুড় মঠ থেকে আসা দুই পুরোহিত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তাই এখন পুজোকে সামলাবে, আর কীভাবেই দেবীর পুজো সম্পন্ন হবে তা নিয়ে চরম সমস্যা দেখা দিয়েছে রামকৃষ্ণ মিশন কর্তৃপক্ষের মধ্যে। রামকৃষ্ণ মিশন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, পুজোর কটা দিন গেট দিন বন্ধ থাকবে ঠিকই। কিন্তু নম: নম: করে হলে দুর্গাপুজো করা হবে।

আরও পড়ুন:ভারী বর্ষণের জেরে বিপর্যস্ত হায়দরাবাদ.. জলের তোড়ে ভেসে গেল একই পরিবারের ৯ জন

রামকৃষ্ণ মিশনের সরকারি মঠাধ্যক্ষ স্বামী দ্বিজেন্দ্রানন্দ মহারাজ জানিয়েছেন, করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন মঠাধ্যক্ষ থেকে কুমারী পুজোর যিনি দেবী হবে তার পরিবার। পাশাপাশি বেলুড় মঠ থেকে আসা দুই পুরোহিত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তার মধ্যেও আমরা কোনও রকমে দুর্গাপুজো উৎসব পালন করব। তবে এবারে অষ্টমীর দিন ভোগ বিলির কোনও ব্যবস্থা করা হয়নি। এছাড়াও কিছু সরকারি বিধি নিষেধ পালন করা হচ্ছে। কোন রকম ভাবে ভক্তদের জন্য মিশনে ভিড় করতে দেওয়া হবে না। করোনা সংক্রমণ রুখতেই কর্তৃপক্ষ বিশেষ এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close