fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

‘নো রোড, নো টোল’, শিরোনামে মালদায় তৃণমূলের বিক্ষোভ

মিল্টন পাল, মালদা: নো রোড নো টোল এরই প্রতিবাদে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক টোলে বিক্ষোভ তৃণমূল কংগ্রেসের। তাদের আরও দাবি জাতীয় সড়কের সম্প্রসারণের কাজ সম্পূর্ণ না করেই জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ টোল আদায় করছে। তাই এদিন বিক্ষোভ দেখানো হয়।পাল্টা বিজেপির দাবি, আগে জেলার রাজ্য সড়ক গুলি ঠিক করুক তারপরে এই আন্দোলন করুক। ঘটনাটি ঘটেছে মালদার বৈষ্ণবনগর থানায় জাতীয় সড়কের টোলপ্লাজায়। বিক্ষোভ দেখায় তৃণমূল কংগ্রেস। তৃণমূলের মালদা জেলার কো_অডিনেটর অম্লান ভাদুরি নেতৃত্বে এই বিক্ষোভ দেখানো হয়।
‌‌
জানা গিয়েছে, টানা বৃষ্টির কারণে ফারাক্কা থেকে উত্তরবঙ্গের প্রবেশ পথে জাতীয় সড়ক বেহাল। অথচ জাতীয় সড়ক কতৃপক্ষ টোল নিচ্ছে রাস্তা ঠিক করছে না। যার ফলে প্রায় প্রায় দূর্ঘটনা নিত্যদিনের সঙ্গী হয়ে দাঁড়িয়েছে জেলা বাসীর। তাই এদিন রাস্তা সারাইয়ের দাবি নিয়ে বৈষ্ণবনগর জাতীয় সড়কের টোলপ্লাজায় বিক্ষোভ দেখা জেলা তৃণমূল।

জেলা তৃণমূলের কো-অডিনেটর অম্লান ভাদুরির অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরে ৩৪নম্বর জাতীয় সড়ক সম্প্রসারণের কাজ চলছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত সেই কাজ শেষ হলো না। মাঝপথে বেশ কিছু জায়গায় কাজ আটকে গিয়েছে। বেশ কিছু জায়গায় রাস্তাঘাট ভেঙে গিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে প্রতিনিয়ত জাতীয় সড়কে দুর্ঘটনা ঘটছে। জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষকে বারবার জানিও কোন লাভ হয়নি। তাদেরকে বললে তারা বলে তাদের কাছে ফান্ড নেই। প্রতিদিন মালদার বৈষ্ণবনগর ও গাজোল থেকে প্রায় ৩০ লক্ষ টাকা টোল আদায় করা হয়। হয় জাতীয় সড়ক সম্পূর্ণ করতে হবে না হলে টোল আদায় করা যাবে না বলে তিনি দাবি করেন।

গোটা ঘটনা নিয়ে জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষের কোন প্রতিক্রিয়া না পাওয়া গেলেও বিজেপির মালদা জেলার সহ-সভাপতি অজয় গঙ্গোপাধ্যায় বলেন, তৃণমূল যে দাবি করছে এর মধ্যে কিছুটা যুক্তি থাকলেও মালদা মানিকচক, নালাগোলা সহ যে রাজ্য সড়ক গুলি আছে সেগুলোতে চলার মতো পরিস্থিতি নেই। তাদের উচিত আগে সেগুলো তাদের রাজ্য সরকারের মাধ্যমে ঠিক করা।

Related Articles

Back to top button
Close