fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

মালদার মানিকচকে বিজেপির পাল্টা সভার ডাক যুব তৃণমূলের, শুরু রাজনৈতিক জল্পনা

মিল্টন পাল, মালদা: হালে পানি পাচ্ছে না। আর সেই কারণে একই জায়গায় একই দিনে বিজেপির পাল্টা সভার ডাক দিয়েছে যুব তৃণমূল কংগ্রেস। মালদার মানিকচকে বিজেপির পাল্টা সভা ডাকায় স্বাভাবিক ভাবেই শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপানুতর। বিজেপির অভিযোগ পায়ে পা লাগিয়ে ঝগড়া লাগানোর জন্য এ ধরনের সভা ডাকা হয়েছে। এদিকে দিলীপ ঘোষ নাকি বহিরাগত দাবি জেলা তৃণমূল যুব কংগ্রেস সভাপতি প্রসেনজিৎ দাসের।
জানা গিয়েছে, ১৩ ডিসেম্বর থেকে উত্তরবঙ্গ সফর শুরু করেছে বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। রবিবার পদাতিক এক্সপ্রেসে কাকভোরে মালদা টাউন স্টেশন থেকে রায়গঞ্জে যান। সোমবার দক্ষিণ দিনাজপুরে সভা করে মালদায় আসেন। এদিন রাতে মালদার প্রথমসারির নেতৃত্বদের নিয়ে সাংগঠনিক বৈঠক করার কথা রয়েছে। মঙ্গলবার মালদার মানিকচকের মথুরাপুরে তার জনসভা রয়েছে। ইতিমধ্যে মাইকিং ও মঞ্চ তৈরির পর্ব চলছে। এরই মধ্যে দিলীপ ঘোষের সভাস্থলের পাশেই যুব তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে সভার ডাক দেওয়া হয়েছে। বিজেপির পক্ষ থেকে দাবি করা হচ্ছে আর এই ঘটনায় যেখানে দিলীপ ঘোষের সভারই অনুমতি পেতে কাল ঘাম ছুটছে বিজেপির। সেখানে তৃণমূলের সভার অনুমতি দিচ্ছে কিভাবে। প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে জেলার রাজনৈতিক মহলে।

আমাদের তৃণমূল কংগ্রেসের প্রতিদিন নানান কর্মসূচি চলছে। সেই মত মঙ্গলবার মানিকচকে সভার ডাক দেওয়া হয়েছে। তাই কে কোথা থেকে বহিরাগত লোকজন আসলো বা না আসলো আমাদের কোনও বিষয় নয়। আমাদের বিজেপির সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ধ্বংশের প্রতিবাদে যুব তৃণমুল কংগ্রেস প্রতিদিন মাঠে ময়দানে আছি। মঙ্গলবার আমরা মানিকচকে সভা করব।

জেলা বিজেপির সহ সভাপতি অজয় গাঙ্গুলি বলেন, প্রতিদিন নাকি যুব তৃণমূল কাজকর্ম রাস্তায় নেমে কাজকর্ম করছে কিন্তু তাদেরকে কোথাও পথে ঘাটে দেখা যাচ্ছে না। অথচ দিলীপ ঘোষের নেতৃত্বে পথে নেমে মানুষ মিটিং মিছিল করছে, তখন তাদের মনে হল সভা সমিতি করতে হবে। আর সেই জন্য পায়ে পা লাগিয়ে লড়াই ঝগড়া করার জন্য তাদের যে সংস্কৃতি সেই সংস্কৃতিকে বিশ্বাস করে তারা কালকে মানিকচকে সভা ডেকেছে। আগে তৃণমূল কংগ্রেসের যে ট্র্যাডিশন ছিল বিজেপির পাল্টা সভা ডাকা।

Related Articles

Back to top button
Close