fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

টানা বৃষ্টির কারনে বেহাল মালদার ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক

মিল্টন পাল, মালদা: টানা বৃষ্টির কারনে বেহাল মালদার ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক। যার জেরে যানজটে জেরবার সাধারণ মানুষ। এর ওপর জাতীয় সড়কের কাজ সম্পূর্ণ না করে নেওয়া হচ্ছে টোল ট্যাক্স। আর এরই প্রতিবাদ জানিয়ে আন্দোলনে নামতে চলেছে নিত্যযাত্রী থেকে সাধারন মানুষ। ইতিমধ্যে শাসকদলের পক্ষ থেকে পুরো বিষয়টি নিয়ে জেলা প্রশাসনকে জানানো হয়েছে।  ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক সম্প্রসারণ না করে কেন টোল ট্যাক্স আদায় করা হচ্ছে , তা নিয়েও বিভিন্ন যানবাহন চালক সংগঠনের পক্ষ থেকেও প্রতিবাদ জানানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ইংরেজবাজার থেকে পুরাতন মালদার ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের দীর্ঘ যানজটে ঘন্টার পর ঘন্টা রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকে বিভিন্ন যানবাহন। দুর্ভোগে পড়তে হয় সাধারণ মানুষকে। এমনকি অফিস যাত্রী, পড়ুয়া থেকে নিত্য পথচারীদের জাতীয় সড়ক পারাপার হতেও চরম সমস্যায় পড়তে হয়। গাজোল থেকে অ্যাম্বুলেন্সে করে অসুস্থ বৃদ্ধা মাকে চিকিৎসার জন্য মালদা মেডিকেল কলেজে নিয়ে আসছিলেন জনৈক এক ব্যবসায়ী চিরঞ্জিত বসাক। কিন্তু দীর্ঘ যানজটের কারণে পুরাতন মালদা মঙ্গলবাড়ী এলাকায় আটকে থাকা অ্যাম্বুলেন্সটি সাহাপুর রাজ্য সড়ক ধরে ঘুরপথে মেডিক্যাল কলেজে যেতে বাধ্য হয়।

চিরঞ্জিতবাবু বলেন, অসুস্থ বৃদ্ধা মাকে মেডিকেল কলেজে নিয়ে যাওয়ার পথে পুরাতন মালদা এলাকার রাস্তায় আটকে পড়েছি। প্রায় দু’ঘণ্টা ধরে অ্যাম্বুলেন্সে বসে রয়েছি। যানজটের কারণে গাড়ি যেতে পারছে না। এমনকি সহযোগিতা পাওয়া যায়নি এলাকার ট্রাফিক কর্তাদের।

[আরও পড়ুন- ফের জার্সি বদল, বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে হুমায়ুন কবির]

যানবাহন চালকদের অভিযোগ, জাতীয় সড়কের বেহাল অবস্থা, তার উপর মঙ্গলবাড়ী চৌরঙ্গী মোড়ের কাছে এফসিআই গোডাউন সংলগ্ন এলাকায় নো-পার্কিং জোনে যত্রতত্র লরি দাঁড়িয়ে থাকাতে যানজট বাঁধছে। বেহাল জাতীয় সড়কের অবস্থা থাকলেও নিয়মিত টোল ট্যাক্স নেওয়া হচ্ছে। বৈষ্ণবনগর থানার আঠারো মাইল এলাকায় জাতীয় সড়ক সম্প্রসারণের কাজ সম্পূর্ণ না করে কেন টোল ট্যাক্স নেওয়া হচ্ছে, সে ব্যাপারেও এনএইচআইএ কর্তৃপক্ষ মুখে কুলুপ এঁটেছে।

জাতীয় সড়কের বেহাল অবস্থা এবং রাস্তার কাজ সম্পন্ন না করে টোল ট্যাক্স নেওয়ায় প্রতিবাদে সরব হয়েছেন জেলা  তৃণমূল নেতৃত্ব। জেলা তৃণমূলের কো-অডিনেটর অম্লান ভাদুরি বলেন, বেহাল জাতীয় সড়কের জেরে যানজট হামেশাই বাঁধছে। তার ওপর বেহাল জাতীয় সড়কের থাকলেও বৈষ্ণবনগর থানার আঠারো মাইল এলাকায় যানবাহন চালকদের কাছ থেকেই নিয়মিত টোল ট্যাক্স আদায় করা হচ্ছে। জাতীয় সড়কের হাল না ফেরানো পর্যন্ত যাতে টোল ট্যাক্স স্থগিত রাখা হয়, এব্যাপারেও আমরা জেলা প্রশাসনকে জানিয়েছি।

উত্তর মালদার সাংসদ খগেন মুর্মু বলেন, জাতীয় সড়ক সম্প্রসারনের কাজ চলছে। কিন্তু প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারনে কিছুকিছু জায়গায় কাজ আটকে রয়েছে। কাটমানিখোর দলের আন্দোলন করার অনুমতি নেই। বৃষ্টি কমলেই দ্রুত কাজ করবে জাতীয় সড়ক কতৃপক্ষ।

পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া জানিয়েছেন, ইংরেজবাজারের রথবাড়ি থেকে পুরাতন মালদার মঙ্গলবাড়ী চৌরঙ্গীমোড় এলাকায় যানজট এড়াতে ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ রয়েছে। আমরা বিষয়টির ওপর নজর রেখেছি।

 

Related Articles

Back to top button
Close