fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

উৎসবে ছাড়, ৩১ আগষ্ট পর্যন্ত সপ্তাহে ২দিন রাজ্যে লকডাউন, ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

পরিবর্তে লকডাউন হবে রবিবার অর্থাৎ ২ আগষ্ট

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক:  রাজ্যেও বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। সুস্থতার হার অন্য অনেক রাজ্যের থেকে ভালো হলেও দিনে দিনে সংক্রমণ বাড়ায় চিন্তিত সাধারণ মানুষ থেকে প্রশাসনও। এমন অবস্থায় ফের লম্বা লকডাউন হতে পারে রাজ্যে।সূত্রের খবর, মঙ্গলবার বিকেল ৪ টে নাগাদ নবান্ন থেকে এবিষয়ে কিছু জানাতে পারেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়।

জানা গিয়েছে, বকরি ঈদের কারণে চলতি সপ্তাহের শনিবার রাজ্যে জারি হচ্ছে না কমপ্লিট লকডাউনের নিয়ম। একইভাবে রাখি পূর্ণিমা ও স্বাধীনতা দিবসের দিনও কমপ্লিট লকডাউনের আওতার বাইরে। পরিবর্তে লকডাউন হবে রবিবার অর্থাৎ ২ অগাষ্ট, মঙ্গলবার নবান্ন থেকে এমনটাই জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি, আগষ্টের কোন কোন দিন গোটা রাজ্যে লকডাউন জারি থাকবে সেই তালিকাও দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। আগামী ৩১ অগস্ট পর্যন্ত সপ্তাহে ২ দিন সম্পূর্ণ লকডাউন থাকবে। এসপ্তাহে বুধবার ও রবিবার লকডাউন। পরের সপ্তাহে শনি ও রবিবার। শুধু ১ ও ১৫ আগস্টে বুধবার লকডাউন থাকছে। আগস্ট মাসে প্রত্যেক রবিবার লকডাউন থাকবে। আগামী চার সপ্তাহে – ২,৫,৮,৯,১৬, ১৭,২২,২৩,২৯ ও ৩০ লকডাউন থাকবে।

বিনা কারণে গাড়ি নিয়ে রাস্তায় বেরোলে, তাঁদের জবাবদিহি করতেহবে। সন্তোষজনক উত্তর না পেলেই গাড়ি সমেত ফেরত পাঠানো হবে। কোনও কোনও ক্ষেত্রে আইনভঙ্গকারীর গাড়িও বাজেয়াপ্ত করবে পুলিশ। জেলা থেকে কলকাতায় প্রবেশের প্রতিটি রাস্তায় চলবে নাকা চেকিং। রবিবার বাজারের ভিড় এড়াতেই সেদিন বিশেষভাবে লকডাউন রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রশাসন। আপাতত স্কুল ও কলেজ বন্ধ থাকবে। রাখী বন্ধন ঈদ ও স্বাধীনতা দিবসে সম্পূর্ণ লকডাউন থাকবে না। সাধারণ লকডাউন চলবে। লকডাউন চলাকালীন বাইরে জমায়েত করা যাবে না। বন্ধ থাকবে অফিস, দোকানপাট।

তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আগামী ৫ সেপ্টেম্বর থেকে ফের স্কুল, কলেজ খোলার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে। সেক্ষেত্রে অল্টারনেটিভ দিনে ক্লাস চালুর ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে বলে মঙ্গলবার নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন: গর্ভের ভিতরেই করোনায় আক্রান্ত শিশু, স্তম্ভিত চিকিৎসকরা

উল্লেখ্য, বর্তমানে রাজ্যে করোনা সংক্রমণের চেন ভাঙতে চালু রয়েছে সপ্তাহে দু দিন লকডাউন। আগের সপ্তাহে বৃহস্পতি ও শনিবার লকডাউন ছিল রাজ্য। এ সপ্তাহে আগামীকাল অর্থাত্‍ বুধবার রাজ্যজুড়ে লকডাউন হওয়ার কথা রয়েছে। চলতি লকডাউনগুলিতে ব্যাপক সক্রিয় রয়েছে পুলিশ। সর্বাত্মক মাত্রায় পালন হচ্ছে লকডাউন। পুলিশ যথেষ্ট সক্রিয়তার সঙ্গে কাজ করছে।

বাংলায় প্রচুর বাইরের মানুষ চিকিত্‍সা করেন। প্রতিদিন প্রায় ১৭ হাজারের উপরে টেস্ট করা হচ্ছে। পরীক্ষা বাড়ছে তাই আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। নবান্নে বৈঠকে বললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি আরও বলেন ৫৬ টি ল্যাবে করোনা টেস্ট হচ্ছে। রাজ্যের শুরু হবে এন্টিজেন টেস্ট। রাজ্যে আটটি জেলায় যেখানে করোনা সংক্রমণ বেশি সেখানে আটজন আই এস অফিসার দের দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে। কোভিড পরিকাঠামো তৈরীর জন্য আলাদা টিম তৈরি করা হয়েছে। সমন্বয় বাড়ানোর লক্ষ্যে ৮ জন আইএস অফিসার কাজ করবেন। এদিন হেল্পলাইন নম্বর ঘোষণা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় টোল ফ্রি নম্বর হল ১৮০০৩১৩৪৪৪২২২ রোগী ভর্তি থেকে শেষকৃত্য সমস্ত দায়িত্ব ভাগ করে দেন মুখ্যমন্ত্রী।

Related Articles

Back to top button
Close