fbpx
একনজরে আজকের যুগশঙ্খকলকাতা

তৃণমূলের নজরে গোয়া, সংগঠন বাড়াতে চলতি মাসেই সফরে খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

নিজস্ব প্রতিনিধি: একুশের বিধানসভা নির্বাচনে বিপুল জয়ের পর তৃণমূল পাখির চোখ করেছে ত্রিপুরাকে। ত্রিপুরার পাশাপাশি তৃণমূলের নজরে রয়েছে গোয়াও। সেই রাজ্যেও সংগঠন বাড়াতে চায় তৃণমূল। ইতিমধ্যেই প্রবীণ কংগ্রেস বিধায়ক লুইজিনরো ফেলেইরো তৃণমূলে যোগদান করেছেন। এই অবস্থায় খোদ তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সংগঠন বাড়ানোর লক্ষ্যে গোয়ায়  যাচ্ছেন।

চলতি মাসের ২৮ তারিখ উত্তরবঙ্গের দুর্যোগ পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে সেখানে যাচ্ছেন মমতা। এরপরই গোয়া উড়ে যাবেন মুখ্যমন্ত্রী। তৃণমূল সূত্রে এমন খবরই পাওয়া গিয়েছে। গোয়ায় বেশ কিছু কর্মসূচি রয়েছে মমতার। সেগুলি সেরে ১ নভেম্বর কলকাতায় ফিরতে পারেন তিনি।

গোয়ায় রাজনৈতিক শক্তিবৃদ্ধির লক্ষ্যে আগেই দলের দুই সাংসদ ডেরেক ও ব্রায়েন, প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়কে সেখানে পাঠিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে গোয়ায় পড়েছিলেন তাঁরা। তাঁদের হাত ধরে প্রাক্তন ভারতীয় ফুটবলার ডেনজিল ফ্রাঙ্কো এবং বক্সিং অ্যাসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি লেনি ডা গামা তৃণমূলে যোগদান করেন। তারও আগে সে রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা কংগ্রেস নেতা লুইজিনহো ফেলেইরো বেশ কয়েকজন কংগ্রেস নেতাকে সঙ্গে নিয়ে তৃণমূলে যোগদান করেছেন।

অর্থাৎ গোয়ায় তৃণমূলের সংগঠন দিন দিন শক্তিশালী হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে মমতার গোয়া সফর নিঃসন্দেহে তাৎপর্যপূর্ণ। এর আগে ত্রিপুরায় সংগঠন বৃদ্ধির ভার সম্পূর্ণভাবে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপর ছেড়ে দিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী। সেখানে বাধা পেয়েও বারবার ছুটে গিয়েছেন দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক। কিন্তু গোয়ার ক্ষেত্রে রাজনৈতিক জমি শক্ত করার দায়িত্ব সরাসরি নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছেন মমতা। মমতার উপস্থিতিতে গোয়ায় কোনও বড় নাম তৃণমূলে যোগদান করেন কিনা, যথারীতি সেদিকে চোখ থাকবে রাজনৈতিক মহলের।

Related Articles

Back to top button
Close