fbpx
কলকাতাহেডলাইন

মোদিজির গাইডলাইন মানলে সুপ্রিম কোর্টের কাছে দিদির বাংলাকে ভর্ৎসিত হতে হতো না: সরব দিলীপ, রাহুল

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: দেশের চারটি রাজ্যে কোভিড চিকিৎসা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করলো সুপ্রিম কোর্ট। পশ্চিমবঙ্গ সহ চার রাজ্য দেশের শীর্ষ আদালতের মূল নিশানায়। আর এই বিষয়েই মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ ও কেন্দ্রীয় সম্পাদক রাহুল সিনহার কটাক্ষ, ‘মোদিজির গাইডলাইন লাইন মেনে চললে এই লজ্জার মুখে পড়তে হতো না।’ সুপ্রিমকোর্টের নিশানায় থাকা চারটি রাজ্য হলো মহারাষ্ট্র, দিল্লি, তামিলনাড়ু ও পশ্চিমবঙ্গ। এই চার রাজ্যের কাছে কোভিড আক্রান্তদের চিকিৎসা কিভাবে চলছে, পরিকাঠামোর অবস্থা কি – এ সম্পর্কে বিস্তারিত রিপোর্ট সহ হলফনামা চেয়েছে শীর্ষ আদালত।

এ বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘ গত মাসেই সুপ্রিম কোর্ট কোভিড নিয়ন্ত্রণে কেন্দ্রীয় নির্দেশিকা মানার নির্দেশ দিয়েছিলেন। রাজ্য সরকার তা মানেনি। ফলে আজ শীর্ষ আদালতের কাছে মুখ পুড়লো বাংলার। তবে এই সরকারের তাতেও হুঁশ ফিরবে কিনা সন্দেহ। তৃণমূলের বন্ধু সিপিএম আবার বলছে সুপ্রিমকোর্টও বিজেপি হয়ে গিয়েছে। কিছু বলার নেই।’ তিনি আরও বলেন, ‘ আমার নির্বাচনী এলাকায় অর্জুনপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মডেল করোনা কোয়ারেন্টাইন সেন্টার গড়েছি। যেখানে বাড়ির পরিবেশে ২৩ জন রয়েছেন।’

আরও পড়ুন: যাত্রী পরিষেবায় সোমবার থেকে ৪০০ বাস নামাচ্ছে রাস্তায়, রাজ্য সরকার

অন‌্যদিকে রাহুল সিনহা ও বলেন, ‘ এই প্রথম নয়, এর আগেও হাইকোর্ট, সুপ্রিমকোর্টের কাছে এই সরকারের মুখ পুড়েছে। কিন্তু শিক্ষা হয়নি, এবারও হবে বলে আশা করি না।’ তিনি আরও বলেন, ‘ তৃণমূল আর ওদের তাবেদার সিপিএম, কংগ্রেস এতোদিন চেঁচাত গুজরাটের সংক্রমণ বেশি। প্রশ্ন সংক্রমণ বেশি নিয়ে নয়। শীর্ষ আদালত প্রশ্ন তুলেছে চিকিৎসা পদ্ধতি, পরিকাঠামো নিয়ে। মনে রাখতে হবে কোন বিজেপি শাসিত রাজ্য প্রশ্নের মুখে পড়েনি। কারণ তারা মোদিজির মডেল করোনারোধে অক্ষরে অক্ষরে পালন করেছে। আর আমাদের রাজ্যের দিদিমনি শুধু বিরোধিতা করেছেন আর একুশের দিকে তাকিয়ে রাজনীতি করেছেন। তাই আজ বাংলাকে লজ্জার মুখে পড়তে হলো।একুশে বাংলার মানুষ এর জবাব দেবে।’

Related Articles

Back to top button
Close