fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

করোনাকে জয় করে হাসপাতালে কোভিড আক্রান্তদের পাশে ব্যক্তি

মিল্টন পাল, মালদা: করোনায় আক্রান্ত  জেলায় প্রথম ব্যক্তি সুস্থ হয়ে এখন মালদা কোভিড হাসপাতালে করোনা আক্রান্তদের জন্য সেবা করছেন। মালদা জেলায় প্রথম করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন তিনি। দীর্ঘ চিকিৎসার পর এখন সুস্থ। তবে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে করোনা রোগীদের চিকিৎসার জন্য পুরাতন মালদার সরকারি কোভিড হাসপাতলে জেলার অন্যান্য করোনা আক্রান্তদের নিরন্তর সেবা দিয়ে চলেছেন। আর এই ঘটনায় উৎসাহিত হচ্ছেন অন্যান্য রোগীরা।

মালদা জেলায় প্রথম করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন সন্তোষ মন্ডল। বাড়ি মালদা জেলার মানিকচক থানার নারীদিয়ারা গ্রামে। তখনো মালদা জেলায় কোন সংক্রমণ ছড়ায়নি ব্যাপক হারে। আজ থেকে মাস তিনেক আগে এই সন্তোষ মন্ডলের শরীরে প্রথম করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছিল। জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের তৎপরতায় তিনি এখন সুস্থ। কিন্তু তা বলে সুস্থ হয়ে বাড়িতে পরিবার-পরিজন নিয়ে দিন কাটাচ্ছেন না। এখন তিনি জেলার কোভিড হাসপাতালে রোজ ডিউটি করছেন। রোগীদের সেবা যত্ন করছেন। রোগীদের উৎসাহ যোগাচ্ছেন। এভাবেই তিনি করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই জারি রেখেছেন।

সন্তোষবাবু জানান, প্রথম মালদা জেলার করোনা আক্রান্ত তিনি ছিলেন,করোনাকে জয় করার পর জীবনের ঝুঁকি নিয়ে করোনা আক্রান্ত রোগীদের দিন-রাত পরিষেবা দিয়ে চলেছেন, প্রত্যেক করোনা আক্রান্ত রোগীকে পরিবারের সদস্যের মতো পরিষেবা দিয়ে চলেছেন,কিছু পারিশ্রমিক দেওয়া হচ্ছে। তবে জীবনের আগে টাকা কিছুই না। তবে করোনা রোগীদের চিকিৎসা করে খুশি তিনি। সন্তোষ মন্ডলের মত যারা কাজ করে চলেছেন করোনা আবহে এরাই হল আসল সমাজের যোদ্ধা।

এ প্রসঙ্গে সন্তোষ মন্ডল জানালে এটা তার কর্তব্য। আমি জেলার প্রথম করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন। করোনা সঙ্গে লড়াই করে সুস্থ হয়েছেন। তিনি চান বাকিরাও সুস্থ হোক। বাকিদের মনে সাহস যোগাতে তিনি নিরন্তর এই রোগীদের পরিষেবা দিয়ে আসছে। আগামীতেও তাই করবেন।

করোনায় আক্রান্ত চিকিৎসাধীন এক রোগী জানান, করোনায় আক্রান্ত হয়ে যে ভাবে এই রোগের চিকিৎসায় সহযোগীতা করছে। একজন করোনা জয়ী করোনা আক্রান্তকে সারিয়ে তোলার রসদ যোগাচ্ছেন। তাতে আমরা মুগ্ধ। দিন রাত নিঃস্বার্থভাবে কাজ করছে। মালদা মেডিক্যাল কলেজের ভাইস প্রিন্সিপ্যাল অমিত দাঁ বলেন, এই রকম সুস্থ হওয়া ৯ জনকে নেওয়া হয়েছে। রোগীদের উৎসাহের বার্তা দিতেই তাদের নিয়োগ করা হয়েছে। এতে রোগীরা উপকৃত হবে।

Related Articles

Back to top button
Close