fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

মালদায় আম ব্যবসায়ীকে গুলি করে খুন, হাঁসুয়ার কোপে আহত এক

মিল্টন পাল, মালদা: আম বাগানের মধ্যে থেকে গুলিবিদ্ধ আম ব্যবসায়ী রক্তাক্ত মৃতদেহ উদ্ধার। হাঁসুয়ার আঘাতে আহত এক। শনিবার ভোর রাতে ঘটনাটি ঘটেছে মালদার মোথাবাড়ি থানার গঙ্গাপ্রসাদ অঞ্চলের রামনাথপুর এলাকায়। আহত ব্যক্তি মালদা মেডিক্যালে চিকিৎসাধীন। মৃতদেহ ময়নাতদন্তে পাঠিয়ে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃতের নাম  আনোয়ার শেখ(৪৮)। পেশায় আম ব্যবসায়ী। বাড়ি কালিয়াচক থানার সুজাপুর গ্রামপঞ্চায়েতের মাদ্রাসা পাড়া এলাকায়। আহতর নাম সফিকুল শেখ। তিনি জানান, আনোয়ার শেখের আম বাগান রয়েছে।সে বিভিন্ন বাগন থেকে আম কিনে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় পাঠায়। পাশাপাশি মোথাবাড়ি থানা এলাকায় নিজস্ব বাগান রয়েছে। তার বাগানে কয়েকদিন ধরে আম চুরি হচ্ছিল।বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় বাজারে আলোচনা করে। সেজন্য শুক্রবার রাত্রে সে তার আম বাগানে রাত পাহাড়া দিচ্ছিল আনোয়ার ও সফিকুল। বাগান পাহাড় পর মাঝরাতে যখন দুইজন বাড়ি ফিরছিল। তখন দুষ্কৃতীরা তাদের পথ আটকায়।

আরও পড়ুন: আগামী ২৯ জুন থেকে খুলছে কর্তারপুর করিডর

এরপর আনোয়ারেয় মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে গুলি করে। ঘটনায় মাটিতে লুটিয়ে পরে  আনোয়ার শেখ। ঘটনার গোলমালে বাধা দেয় পরিবারের সদস্য শফিকুল শেখ। দুষ্কৃতীদের বাধা দিতে গেলে তাকে হাঁসুয়া দিয়ে পিছন দিক থেকে তার পিঠে আঘাত করে। তার চিৎকারে গ্রামবাসীরা ছুটে আসলে ঘটনাস্থল থেকে দুষ্কৃতীরা পালিয়ে যায়। আহতকে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতালে পরে মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। খবর পেয়ে মোথাবাড়ি থানার পুলিশ এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ময়না তদন্তের জন্য পাঠায়। ঘটনায় মৃতের পরিবারের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে থানায়।

মালদা ম্যাঙ্গো মার্চেন্টের সভাপতি উজ্জ্বল সাহা বলেন, এই বছর যা পরিস্থিতি তাতে ক্ষতির মুখে আম ব্যবসায়ী থেকে চাষীরা। তার ওপর আম ব্যবসায়ীকে গুলি করে খুন। ঘটনাটি দুঃখজনক ঘটনা। আমরা পুলিশকে বলেছি দোষীদের অবলম্বে গ্রেফতার করতে হবে। পুলিশ প্রশাসন আম ব্যবসায়ীদের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ। পুলিশের উদাসীনতার কারণে প্রতিবছর আম ব্যবসায়ীদের মারধর বা খুনের মত ঘটনা ঘটে। আমরা ওই পরিবারের পাশে রয়েছি। দোষীদের দ্রুত গ্রেফতার করা না হলে ব্যবসায়ীদের নিয়ে অবিলম্বে আন্দোলনে যেতে বাধ্য হব।

পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া বলেন, মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। দুষ্কৃতীদের খোঁজে এলাকায় তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

Related Articles

Back to top button
Close