fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

রাজ্যের অনেক আধিকারিক সংবিধানের বিরুদ্ধে কাজ করছেন… দেশ, গণতন্ত্র সুরক্ষিত থাকছে না: ধনকর

মিল্টন পাল, মালদা: ‘দেশ পরিবর্তন হচ্ছে। দেশ কোনদিন ভেবেছিল ৩৭০ ধারা উঠে যাবে। আজ উঠে গেছে। ভারতে পরিবর্তন হচ্ছে। উত্তরবঙ্গের বেশ কিছু সমস্যা রয়েছে। দুর্নীতির সঙ্গে নিরাময়করণ করা দরকার। আজ কার সম্পর্কে বলছি কার কথা ভাবছি আমরা ‘সর্দার প্যাটেল’। এর আগে তিনবার উত্তরবঙ্গে গেছি কিন্তু এবার প্রথম দার্জিলিং যাচ্ছি। সেখানে রাজ ভবন রয়েছে। দার্জিলিং আমার আরেকটি কার্যালয়। ওখানে চা বাগানের মালিক শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলব। এখানকার মানুষের সঙ্গে কথা বলব। গোর্খাল্যান্ডের সমস্যা দূরদৃষ্টির
মাধ্যমে মিটবে। শনিবার বেলা ১ টা ৩৩ মিনিটে কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেসে এনজিপি যাওয়ার পথে ট্রেন মালদায় থামলে সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখে এই কথা বলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর।

এদিন রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করেন উত্তর মালদার সাংসদ খগেন মুর্মু, বিজেপির জেলা সভাপতি গোবিন্দ্র চন্দ্র মন্ডল, রেলের ডিআরএম, রেলের আধিকারিকরা। যদিও রাজ্য সরকারের ও জেলা প্রশাসনের কোনও আধিকারিকে রাজ্যপালের সাথে দেখা করতে যেতে দেখা যায়নি।

এদিন মালদা টাউন স্টেশনে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি বলেন, রাজ্যের অনেক আধিকারিক সংবিধানের বিরুদ্ধে কাজ করছে। যার ফলস্বরূপ দেশ এবং গণতন্ত্র সুরক্ষিত থাকছে না। রাজ্যের প্রথম সেবক হওয়ার কারণে রাজ্যের বড় সরকারি আধিকারিকদের কাছে হাতজোড় করে অনুরোধ করব আপনারা পাবলিক সার্ভেন্ট। পলিটিকাল সার্ভেন্ট হবেন না। আপনারা পলিটিকাল সারভেন্ট হয়ে গণতন্ত্রের আর তাতেই কুঠারাঘাত করছেন।এ ঘটনাটা আমার চোখের সামনে হচ্ছে। কিছু মানুষ বুঝে গেছে। আর কিছু দেরিতে বুঝছে।একটা কথা আপনারা শুনুন রাজ্যের প্রথম সেবকের সঙ্গে আপনারা সব রকম প্রশ্ন করতে পারেন, নির্ভয়ে।

আরও পড়ুন: কৃষি বিলের বিরুদ্ধে সত্যাগ্রহ আন্দোলনে জাতীয় কংগ্রেস

রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর এদিন আরও বলেন, আমি সেই দিনটার অপেক্ষায় আছি যেদিন রাজ্যের যেকোনও মানুষের কাছে আপনারা প্রশ্ন করতে পারবেন, নির্ভয়ে। রাজ্যে আলকায়দা জমাচ্ছে প্রশাসন জানে না। অবৈধ বোম বানানো চলছে। এমন কোন দিন যাচ্ছে না অবৈধ বোম বানাতে গিয়ে মানুষের মৃত্যু হচ্ছে না। এখানে বর্বরতার তাণ্ডব চলছে। এইরকম স্থিতি চলতে দেওয়া হবে না। সরকারি দফতর রাজনৈতিক কাজে ব্যবহার করতে দেওয়া হবে না।

Related Articles

Back to top button
Close