fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

ভার্চুয়াল মিটিংয়ের সময়, দুর্গাপুরে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ ৫২ জন

জয়দেব লাহা, দুর্গাপুর: শিল্পাঞ্চলে ঘাসফুল শিবিরে ভাঙন! অমিত শাহ ভার্চুয়াল মিটিংয়ের সময় বিজেপিতে যোগ দিলেন ৫০ র বেশী তৃণমূলকর্মী। বিধানসভা নির্বাচনের আগে শাসকদলের ঘর ভাঙতে শুরু করায় দুর্গাপুরজুড়ে জল্পনা ছড়িয়েছে রাজনৈতিক মহলে।
 বিজেপির জনসম্পর্ক যাত্রার দিনই দুর্গাপুরের এম.এ.এম.সি টাউনশিপ থেকে বাহান্ন জন তৃণমূল কর্মী বিজেপিতে যোগদান করল.
প্রসঙ্গত, ২০২১ সালে পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে জনসম্পর্কে নেমেছে গেরুয়া শিবির। লকডাউনে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে মঙ্গলবার ভার্চুয়াল মিটিং করে বিজেপি।
প্রধান বক্তা ছিল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। রাজ্যের সমস্ত জেলায় বুথস্তর থেকে কর্মীরা সামিল ছিল ওই মিটিংয়ে। কোথাও আবার জায়েন্ট স্ক্রীনও বসানো হয়। এদিন দুর্গাপুরে ২৪ নং ওয়ার্ড এলাকায় বিজেপির জনসম্পর্ক যাত্রা অনুষ্ঠান দেখানোর আয়োজন করে স্থানীয় কর্মীরা।
উপস্থিত ছিলেন বিজেপির পশ্চিম বর্ধমান জেলা সভাপতি লক্ষণ ঘোড়ুই। ভার্চুয়াল মিটিং শেষে এলাকার ৫২ জন তৃণমূল কর্মী সমর্থক বিজেপিতে যোগদান করেন। তাদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেয় জেলা সভাপতি লক্ষণ ঘোড়ুই। তিনি জানান,” পরিবর্তনের জামানা থেকে মানুষ পরিত্রান চাইছে। কেন্দ্রের আয়ুষ্মান কার্ড থেকে কৃষকদের ভাতা প্রদান কিভানে রাজ্যের মানুষকে বঞ্চিত করছে, সেসব উপলব্ধি করেই ৫২ জন তৃণমূলকর্মী বিজেপিতে যোগ দিয়েছে। বিজেপির কাজে তারা অনুপ্রাণিত। অনেকে রাজ্যের শাসক দলের প্রতি তিতিবিরক্ত হয়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছে।”
যদিও বিষয়টিকে মোটেই গুরুত্ব দিতে চাননি তৃণমূল কংগ্রেসের দুর্গাপুর পূর্বের কো- অর্ডিনেটর ধৃতি ব্যানার্জী জালান। তিনি বলেন,” তাদের জন্য দলের বিশাল কোন ক্ষতি হবে বলে মনে হয় না। বিজেপিতে বিশেষ কিছু সুবিধা পাবে বলে মনে হয় না। তবুও কেন যোগ দিয়েছে, খতিয়ে দেখব।”

Related Articles

Back to top button
Close