fbpx
কলকাতাহেডলাইন

দাউদাউ করে জ্বলছে তোপসিয়ার বস্তি, পুড়ে ছাই বহু ঝুপড়ি

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক:  তোপসিয়ায় ২৪ নম্বর বাসস্ট্যান্ড লাগোয়া বস্তিতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড।পুড়ে ছাই হয়ে যায় ৫০ থেকে ৬০টি ঝুপড়ি। ইতিমধ্যেই ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করছেন দমকল কর্মীরা।এর মধ্যেই ঘটনাস্থলে গিয়েছে দমকলের ১২টি ইঞ্জিন। ইতিমধ্যেই ঘটনার খবর নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন তিনি।

কী থেকে এই আগুন লেগেছে তা স্পষ্ট নয়। তদন্ত করে খতিয়ে দেখা হবে বলে জানিয়েছেন দমকল আধিকারিকরা। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ফায়ার ব্রিগেডের ডিজি-কে ঘটনাস্থলে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। এই ঘটনাও এখনও পর্যন্ত কোনও হতাহতের খবর নেই। তবে বস্তি এলাকা ঘিঞ্জি হওয়ায় দ্রুত ছড়িয়ে পড়েছে আগুন। ভিতরে কেউ আটকে পড়েছেন কিনা সেদিকে নজর রেখেছেন দমকল কর্মীরা। পুরদমে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা চালাচ্ছে দমকলের ১২টি ইঞ্জিন। প্রয়োজনে আরও ইঞ্জিন আনা হতে পারে বলে জানিয়েছেন দমকল আধিকারিকরা।

এদিন দুপুর নাগাদ ওই বসতি এলাকায় আগুন লাগে বলে জানা গিয়েছে। ঘটনাস্থলে প্রথমে পৌঁছায় দমকলের ছ’টি ইঞ্জিন। পরে আরও ৬টি ইঞ্জিন পাঠানো হয়। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করছেন কর্মীরা। কিন্তু জনবসতিপূর্ণ এলাকা হওয়ায় দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে আগুন। তাছাড়া সেখানে মোবিল ও তেলের কারখানাও রয়েছে বলে জানা গিয়েছে। তাই আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে বেশ বেগ পেতে হচ্ছে কর্মীদের।

আরও পড়ুন: জীবনদায়ী ঔষধের দোকানে বাজি বিক্রি, গ্রেফতার ১, উদ্ধার প্রচুর নিষিদ্ধ বাজি

কর্মীদের পাশাপাশি এলাকার বাসিন্দারাও আগুন নেভানোর কাজে হাত লাগিয়েছেন। বসতি সংলগ্ন খাল থেকে জল এনে আগুন নেভানোর চেষ্টা করছেন তাঁরা। ঘটনায় এখনও পর্যন্ত হতাহতের কোনও খবর নেই। জানা গিয়েছে, ঝুপড়ির বাসিন্দাদের সেখান থেকে সরিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে। ভিতরে কেউ আটকে নেই। তবে ঠিক কীভাবে আগুন লাগল, তা এখনও স্পষ্ট নয়। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে, এলাকার রঙের কারখানাতেই প্রথমে আগুন লাগে। সেখান থেকেই তা ছড়িয়ে পড়ে।

 

Related Articles

Back to top button
Close