fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

করোনায় আক্রান্ত রাজ্য মানবাধিকার কমিশনের ডিএসপি, রাজ্যে নতুন আক্রান্ত ৩৭০, মৃত ১১, সুস্থ ৫৩১

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এল রাজ্য মানবাধিকার কমিশনের ডিএসপি তাপস চক্রবর্তীর। মঙ্গলবার তিনি হাওড়া আইএলএস হাসপাতাল ভর্তি হয়েছেন৷ জানা গিয়েছে, গত শুক্রবার তিনি কমিশনের অফিসে এসেছিলেন। তাপস বাবুর করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ঘটনায় তাঁর সংস্পর্শে আসা অফিস কর্মী সহ অন্যান্য অফিসারদের আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন।

অন্যদিকে, মঙ্গলবার প্রকাশিত স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিনে জানানো হয়েছে, রাজ্যে ২৪ ঘন্টায় ফের নতুন আক্রান্ত ৩৭০ জন, সুস্থ হয়েছেন ৫৩১ জন, মৃত্যু হয়েছে ১১ জনের।

বুলেটিন অনুযায়ী, ফের ২৪ ঘন্টায় ৩৭০ জন করোনা পজিটিভে রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১৪৭২৮ জনে। আরও ১১ জনের মৃত্যু হওয়ায় রাজ্যে সরকারি হিসেবে মোট করোনায় মৃত্যু ৫৮০ জনের। এদিকে আরও ৫৩১ জন সুস্থের হিসেব ধরলে মোট সুস্থ হলেন ৯২১৮ জন। তার মধ্যে এদিন অন্যান্য জেলার সঙ্গে কলকাতায় ২০৫ জন, উত্তর ২৪ পরগনায় ১০০ জন এবং হুগলিতে ৭৫ জন সুস্থ হওয়ার জেরে সুস্থতার হার ফের বেড়ে দাঁড়াল ৬২.৫৮ শতাংশে।

এই মুহূর্তে রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন ৪৯৩০ জন। এদিন পর্যন্ত রাজ্যের ৪৯ টি ল্যাবে মোট করোনা টেস্টের সংখ্যা ৪২০২৭৭ জনের। তার মধ্যে ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে করোনা পরীক্ষা হয়েছে ৯৪২৩ জনের। রাজ্যের ৭৭ টি করোনা হাসপাতাল, ২৪ টি সরকারি এবং ৫৩ টি বেসরকারি হাসপাতালে মোট ১০৩৪১ টি বেড আছে, আইসিইউ পরিষেবা রয়েছে ৯৪৮ জনের। ভেন্টিলেটর রয়েছে ৩৯৫ টি। তার ২০.৮৩ শতাংশ রোগী ভর্তি আছেন।

সরকারি ৫৮২ টি কোয়ারেন্টাইনে এখন রয়েছেন ৮৮১৯ জন। ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ৯১৪৬৯ জনকে। হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ১২১২৯৪ জন। ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ১৭৮৩৯৪ জনকে। শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন ফেরত পরিযায়ী শ্রমিকদের তথ্যে জানানো হয়েছে, ৫৪৯৯ টি কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে ৫১২৭৫ জন শ্রমিককে কোয়ারেন্টাইন করে রাখা হয়েছে। করোনা পরীক্ষা করে সুস্থ দেখে ২০৬৭০৯ জন শ্রমিককে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। রাজ্যে সেফ হোম ও তার বেড সংখ্যা এবং সেখানে রোগীদের সংখ্যা উল্লেখ করে বলা হয়েছে, রাজ্যের ১০৬ টি সেফ হোমে ৬৯০৮টি বেড রয়েছে এবং তাতে ১৮৭ জন রোগী রয়েছেন।

এছাড়া এদিনের বুলেটিনে জেলাওয়াড়ি তথ্যে জানানো হয়েছে, কলকাতায় এদিন ৮১ আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ায় মোট সংক্রমণ ৪৮১৫ জনের। এদিন কলকাতায় আরও মাত্র ৩ জনের মৃত্যু হওয়ায় কলকাতাতে মোট মৃত্যু ৩৩৯ জনের। এছাড়া উত্তর ২৪ পরগনায় ৩ জন, হাওড়ায় ৪ জন এবং পূর্ব মেদিনীপুর ১ জনের মৃত্যু হওয়ায় মোট আরও ৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদিন অন্যান্য জেলার সঙ্গে উত্তর ২৪ পরগনায় ৫৫ জনের এবং হাওড়ায় ৪৯ জনের উল্লেখযোগ্য হারে সংক্রমণ বৃদ্ধি পেয়েছে। এদিনও উত্তরবঙ্গের কোচবিহার, কালিম্পং এবং দক্ষিণবঙ্গের পুরুলিয়া ও ঝাড়গ্রাম ছাড়া সংক্রমণ বেড়েছে রাজ্যের বাকি সমস্ত জেলাতেই।

মোট আক্রান্ত ১৪৭২৮ জন
মোট মৃত ৫৮০ জন
মোট সুস্থ ৯২১৮ জন

Related Articles

Back to top button
Close