fbpx
আন্তর্জাতিকআমেরিকাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

হোয়াইট হাউস ছাড়তে নারাজ কর্তা, বেরোতে পারলেই বাঁচেন গিন্নি

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: হোয়াইট হাউস ছাড়তে নারাজ তার কর্তা ট্রাম্প। আর সেজন্য একের পর এক মামলা মোকদ্দমা করে চলেছেন। আগামী দিনে আরও অনেক কিছু করার ছক কষছেন। কিন্তু হোয়াইট হাউজ ছাড়ছে উঠে পড়ে লেগেছেন ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প। এরপর কোথায় যাবেন কীকরবেন সেই বিষয়ে ইতিমধ্যেই  কোথায় যাবেন, কত টাকা তাঁর ভাগে পড়বে, সবই খোঁজ খবর নিয়ে ফেলেছেন মেলানিয়া ট্রাম্প। বিদায়ী মার্কিন ফার্স্ট লেডি। বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্ত্রী।

জানা গেছে, ফ্লোরিডার পাম বিচে মার–আ–লাগোতে ট্রাম্পদের একটি ক্লাব রিজর্ট রয়েছে। হোয়াইট হাউস থেকে সেখানে গিয়েই উঠবেন ট্রাম্প দম্পতি। ১৪ বছরের ছেলে ব্যারনকে ইতিমধ্যে সেখানকার স্কুলে ভর্তির ব্যবস্থাও করেছেন মেলানিয়া। হোয়াইট হাউস থেকে মার–আ–লাগোর ঠিকানায় কী কী নিয়ে যাবেন, সেই তালিকাও তৈরি করে ফেলেছেন তিনি। ট্রাম্প দম্পতি কিছু ছবি, ঘর সাজানোর সামগ্রি, আসবাব সঙ্গে নিয়ে এসেছিলেন। কিছু কিনেওছিলেন। সেসবই নিয়ে যাচ্ছেন বলে খবর।

এখন মেলানিয়া শুধুই দিন গুনছেন, কবে ছাড়বেন হোয়াইট হাউসে ৫৫ হাজার বর্গফিটের আস্তানা। তাঁর এক ঘনিষ্ঠ জানালেন, ‘‌মেলানিয়া এখন বাড়ি যেতে যান।’‌ ট্রাম্প ২০২৪ সালে হোয়াইট হাউসে ফিরতে বদ্ধপরিকর। মেলানিয়া সেসব নিয়ে উচ্চবাচ্চও করছেন না।

আগে হোয়াইট হাউস অফিসে অ্যাডমিনিস্ট্রেশন দেখতেন মার্সিয়া লি কেলি। সেই কেলিকে নাকি মেলানিয়া জিজ্ঞেসও করেছেন, হোয়াইট ছাড়ার পর তাঁর খরচপত্রের কী ব্যবস্থা রয়েছে। তাঁর জন্য কোনও ভাতা বরাদ্দ রয়েছে কিনা, খোঁজ নিয়েছেন তাও। বাস্তবে যদিও প্রাক্তন ফার্স্ট লেডির জন্য কোনও ভাতার ব্যবস্থা নেই আমেরিকায়। প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট স্বামী মারা গেলে বছরে ২০ হাজার ডলার পেনশনের ব্যবস্থা রয়েছে।

 

Related Articles

Back to top button
Close