fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

কালনা মহকুমাশাসককে স্মারকলিপি কংগ্রেস নেতৃত্বের

অভিষেক চৌধুরী,কালনা: এই রাজ্যে ফিরে আসা বেকার ও শিক্ষিত যুবকদের কর্মসংস্থান সহ কাজ দিতে হবে,আমফান সহ পরপর দুটি ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলিকে অবিলম্বে সরকারী সাহায্য দিতে হবে এইরকমই বেশ কয়েক দফা দাবি তুলে সোমবার পূর্ব বর্ধমানের কালনা মহকুমাশাসকের অফিসে স্মারকলিপি জমা দিলেন মহকুমা কংগ্রেস নেতৃত্ব।এইদিন কংগ্রেসের এই মিছিলে উপস্থিত ছিলেন মহকুমা কংগ্রেসের সভাপতি রবীন্দ্রনাথ মন্ডল, কালনা ১ নং ব্লক সভাপতি সুশীল পাকিরা সহ অন্যান্য নেতৃত্ব।

কালনা মহকুমা কংগ্রেস কমিটির পক্ষ থেকে সোমবার পঁচিশ জনের একটি দল মিছিল করে মহকুমাশাসকের দপ্তরে যান ও বেশ কয়েকটি দাবি নিয়ে তারা একটি স্মারকলিপিও জমা দেন।এই বিষয়ে মহকুমা কংগ্রেসের সভাপতি রবীন্দ্রনাথ মন্ডল বলেন,আমফান সহ পরপর দুটি ঝড়ে কালনা মহকুমা এলাকায় বেশ ক্ষতি হয়েছে।ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলিকে অবিলম্বে তাদের অ্যাকাউন্টে সরাসরি ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।তার উপর লকডাউনে এই মহকুমা এলাকায় বাইরে রাজ্যে কাজ করা অনেক যুবক বাড়ি ফিরে এসেছেন।তাই তাদের কাজের ব্যাবস্থা করতে হবে।সরকারের মনোরাগা প্রকল্পে একশো দিনের কাজের পরিবর্তে তাদের দুশো দিনের কাজ দিতে হবে।অনেকেরই জব কার্ড নেই। তাই পঞ্চায়তের মাধ্যমে নয় প্রশাসনের মাধ্যমে তাদের জবকার্ড দেওরার ব্যবস্থা করতে হবে।

আরও পড়ুন: তৃণমূল এবং সিপিএম ভেঙ্গে বিজেপিতে যোগদানের হিড়িক নদিয়াজুড়ে

শুধু তাই নয় লকডাউনে অনেকের কোনো আয় নেই বললেই চলে।তাই তাদের তিনমাসের বিদ্যুৎ বিল মুকুব করার দাবি জানাই।এছাড়াও রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে কৃষক বন্ধুর টাকা দেওয়া হলেও অনেক কৃষকেরই কৃষকবন্ধু অ্যাকাউন্ট নেই।তাই তাদেরও অ্যাকাউন্টের ব্যবস্থা করে টাকা দিতে হবে।এমনিই বেশ কয়েকটি দাবি নিয়ে কালনার মহকুমাশাসককে একটি স্মারকলিপি দেওয়া হয়।উনি আমাদের আশ্বাসও দেন যে উর্ধতন কতৃপক্ষকে বিষয়টি জানানোর পর তা সমাধানের চেষ্টা করবেন।

Related Articles

Back to top button
Close