fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

সম্পত্তির লোভে দাদার হাতে খুন ভাই, গ্রেফতার অভিযুক্ত

অভিষেক আচার্য, কল্যাণী: সম্পত্তির লোভ! তাই দাদার হাতেই প্রাণ দিতে হল ভাইকে। নদীয়ার কল্যানীর বসন্তপুর এলাকায় নৃশংসভাবে কুপিয়ে খুন করা হল ৪০ বছরের শম্ভু যাদবকে।

বসন্তপুর এলাকার এইমসের ঠিক উল্টোদিকে কয়েক কাঠা জমির ওপর ২ তলা বাড়ি ও একটি বিশাল খাটাল শেষ করে দিল যাদব পরিবারকে। এটাই মনে করছে পুলিস। ৪ ভাইয়ের মধ্যে রামবিহারি যাদব বড়ভাই। কয়েক বছর আগে বাড়ি থেকে বেরিয়ে নদীয়ার হরিণঘাটা এলাকায় বঙ্কিম কলোনীতে আলাদা হয়ে পরিবার নিয়ে থাকতে শুরু করেন রামবিহারি। তারপর থেকেই সম্পত্তির ভাগ চাইতে থাকে রামবিহারি। সেই ভাগ দিতে রাজি না হওয়ার চরম পরিণতি, খুন।

এই বিষয়ে ছোট ভাই শত্রুঘ্ন যাদব বলেন, বাবা মারা যাওয়ার আগেই প্রত্যেক ভাইকে সম্পত্তি ভাগ করে দিয়েছেন। সেখানে ভাইদের সম্পত্তির ওপরেই ভাগ চাইতে থাকে বড় ভাই রামবিহারি। শুক্রবার সকালে যখন আমার দুই ভাই শম্ভু যাদব ও ভরত যাদব খাটালে কাজ করছিলেন সেই সময় রামবিহারি হঠাৎ ধারালো দা দিয়ে বুকে কোপ মারে শম্ভুকে। তাঁকে বাঁচাতে গেলে ভরত কেও কোপ মারে অভিযুক্ত।

পুলিশ সূত্রে খবর, গুরুতর আহত অবস্থায় শম্ভু কে কল্যানীর জে এন এম হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে সেখানেই তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। বা হাতে চোট পেয়েছেন ভরত। ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার হয়েছে খুনে ব্যবহৃত অস্ত্র।  গ্রেফতার হয়েছে অভিযুক্ত রামবিহারি।  খুনের পর প্রমাণ লোপাটের চেষ্টা হয়েছে বলেও পুলিসের ধারণা। এই কাজ কারুর একার পক্ষে করা সম্ভব নয় বলেই মনে করা হচ্ছে। তাই এই ঘটনায় অভিযুক্তের দুই ছেলে অনিল ও মুন্না যাদবকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ। এই ঘটনায় যাদব পরিবারে শোকের ছায়া নেমেছে।

Related Articles

Back to top button
Close