fbpx
কলকাতাদেশপশ্চিমবঙ্গশিল্প-বাণিজ্যহেডলাইন

কোভিড সংকটের মাঝে কর্মসংস্থানের উদ্যোগ নিল ইস্পাত জগতের পথিকৃৎ মিকি মেটালস লিমিটেড

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: কোভিড সংকটের মাঝে কর্মসংস্থান সৃষ্টির পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে চলেছে মিকি মেটালস লিমিটেড। এই প্রসঙ্গে গত ৫ নভেম্বর পূর্ব ভারতে মিকি মেটাল লিমিটেডের সর্বশেষ উদ্যোগ “মিকি পাওয়ার প্লাস টিএমটি” এর নতুন উন্নয়ন এবং সম্প্রসারণ পরিকল্পনা ঘোষণা করার জন্য  একটি সংবাদ সম্মেলনে আহবান করা হয়। সেখানে মিকি পাওয়ার প্লাস টিএমটি 600 এসডি, তাদের সুপার ডয়েলটাইল রিবড টিএমটি রিইনফোর্সমেন্ট বার চালু করার কথা জানায়। ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট অভিনেতা যীশু সেনগুপ্ত। অভিনেতার উপস্থিতিতে ব্র্যান্ডটি তাদের নতুন লোগোটিও প্রবর্তন করে। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মিকি মেটালস লিমিটেডের ডিরেক্টর এস কে আগরওয়াল, এন কে আগরওয়াল, সৈকত আগরওয়াল, সুমিত আগরওয়াল প্রমুখ।

কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে জানানো হয়, মিকি মেটালস লিমিটেড পশ্চিমবঙ্গের সিউড়ি, বীরভূমে গড়ে উঠেছে। অন্যত্র এই উৎপাদন কেন্দ্রটির গড়ে তোলার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। যার মধ্যে দুর্গাপুরকে অন্তর্ভূক্ত করার পরিকল্পনা নিয়েছে। ভৌগলিক দিক দিয়ে বিচার করে এই উৎপাদনকেন্দ্রটি ভারতের মধ্যে অন্যান্য রাজ্যে যেমন বিহার, ঝাড়খন্ড, ওড়িশা, অসম, উত্তরপ্রদেশ, রাজস্থান, হরিয়ানা, জম্মু-কাশ্মীরে আগামী ৬ মাসের মধ্যে বিস্তার লাভ করার পরিকল্পনা নিয়েছে তারা। ফলে বাড়বে কর্মসংস্থান।

মিকি মেটাল লিমিটেডের ডিরেক্টর সৈকত আগরওয়াল বলেন, ‘আমরা শুধু গুণগত মান দিয়ে উন্নত হতে চাই তা নয়, আমরা চাই সকলের বিশ্বাসযোগ্যতা অর্জন করতে। সেই লক্ষ্যেই আমাদের টিম কাজ করে চলেছেন। আগামী ৬ মাসের মধ্যে ভারতের অন্যান্য রাজ্যগুলিতে বিস্তার লাভ করার লক্ষ্য নিয়েছি। পশ্চিমবঙ্গের মধ্যে দুর্গাপুরে আমরা আমাদের উৎপাদন কেন্দ্রটি যুক্ত করতে চাইছি’।

পাশাপাশি ডিরেক্টর সুমিত আগরওয়াল বলেন, বর্তমান করোনা মহামারী আমাদের আরও সচেতন করে তুলেছে। যেহেতু কলকাতা এখন তৃতীয় এবং চতুর্থ অঞ্চলের অধীনে রয়েছে, যে কোনও প্রাকৃতিক দুর্যোগ থেকে সুরক্ষার মাথায় রেখে নতুন মিকি পাওয়ার প্লাস টিএমটি 600 এসডি নিয়ে আসা হল বাজারে’।

প্রসঙ্গত, ইস্পাত জগতের পথিকৃত মিকি মেটালস লিমিটেড। এটি উচ্চ-স্টিল টিএমটি বারের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় নির্মাতা। মিকি মেটালস লিমিটেড  ইস্পাত শিল্পের পরিবর্তিত প্রয়োজনীয়তার কথা মাথায় রেখে ক্রমাগতভাবে এগিয়ে চলেছে। আধুনিক প্রযুক্তির সঙ্গে তাল মিলিয়ে টিএমটি বার তৈরি করে চলেছে। এই ইন্ডাস্ট্রি পণ্যের উন্নতির সঙ্গে সঙ্গে  গ্রাহকদের বিশ্বাসযোগ্যতাও অর্জন করেছে। দেশ ও জাতির উন্নয়নে নিজেদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকার কথা তুলে ধরতে সক্ষম হয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close