fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

কোয়ারেন্টাইনে সেন্টারে নিম্নমানের খাওয়ার দেওয়ার প্রতিবাদ করায় পরিযায়ী শ্রমিকদের প্রাণনাশের হুমকি কর্তব্যরত কর্মীদের

মিল্টন পাল, মালদা: কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে নিম্নমানের খাওয়ার দেওয়ার প্রতিবাদ করায় সুঁচ ফুটিয়ে পরিযায়ী শ্রমিকদের মেরে ফেলার হুমকি দিল কোয়ারেন্টাইন সেন্টারের দায়িত্বে থাকা কর্মীরা। ঘটনাটি মালদা কালিয়াচক ২ নম্বর ব্লকের মোথাবাড়ি থানার কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে। অন্যদিকে বাঙিটোলা এলাকায় কোয়ারেন্টাইন সেন্টার করতে দেবে না বলে গ্রামবাসীদের বিক্ষোভ।

 

করোনা সংক্রমনের জেরে লকডাউনে আটকে থাকা শ্রমিকদের রাজ্য সরকারের উদ্যোগে ঘরে ফেরানো শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যে ট্রেনে করে বহু ভিন রাজ্য থেকে শ্রমিক মালদায় ফিরেছেন। তাদের নিজ নিজ এলাকার কোয়ারেন্টাইনে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জেলা প্রশাসন। সেই মত বহু শ্রমিক কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে। সম্প্রতি মুম্বই থেকে ওই সব শ্রমিকরা ট্রেনে করে মালদায় এসেছিলেন। তাদের সোয়াব টেস্টে ১৯জন শ্রমিকের করোনা সংক্রমন পাওয়া গেছে। এরপরই প্রশাসন এদেরকে মোথাবাড়ি একটি স্কুলের কোয়ারেন্টাইনে রাখেন। এই আক্রান্ত শ্রমিকদের অভিযোগ এই সেন্টারে তাদের নিম্নমানের খাওয়ার দেওয়া হচ্ছে। প্রতিবাদ করলেই তাদেরকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার রাতে নিম্নমানের খাওয়ার পাওয়ার পর তারা প্রতিবাদ করলে ওই কোয়ারেন্টাইন সেন্টারের দায়িত্বে থাকা কর্মীরা সুঁচ ফুটিয়ে মেরে ফেলার হুমকি দিয়েছেন বলে তাদের অভিযোগ।বাধ্য হয়ে তারা পুরো বিষয়টি তারা সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করেছে।

 

ভিন রাজ্য ফেরত আরেক শ্রমিক জানান, কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে যে সমস্ত খাওয়ার দেওয়া হচ্ছে তা অত্যান্ত নিম্ন মানের,গন্ধে ভরা যা খাওয়ার যোগ্য নয়। এই নিয়ে প্রতিবাদ করায় প্রান নাশের হুমকি দিচ্ছেন কর্তব্যরত কর্মীরা। অন্যদিকে বাঙ্গিটোলা এলাকায় কোয়ারেন্টাইন সেন্টার করতে দেবে না গ্রামবাসীরা। আর এই প্রতিবাদ জানিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে গ্রামবাসীরা।

 

 

গ্রামের বাসিন্দা সাধনা উপাধ্যায় জানান, গ্রামের মধ্যে স্কুলে পড়েন কোয়ারেন্টাইন সেন্টার করা হলে যেকোনো মুহূর্তে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়তে পারে। সেই কারণেই আমরা কোন মতেই গ্রামের মধ্যে স্কুলে পড়ান কোয়ারেন্টাইন সেন্টার করতে দেবো না। তাতে গ্রামের পরিস্থিতি আরও ভয়ঙ্কর হয়ে উঠবে। গ্রাম থেকে অন্য জায়গায় প্রশাসন তা করুক। সেই কারণে আমরা বিক্ষোভ দেখিয়েছি। উত্তর মালদার বিজেপি সাংসদ খগেন মুর্মু বলেন, গরীব পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরানোর জন্য রাজ্য সরকারের তরফ থেকে কোনো উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। তারা যেভাবেই হোক ফিরে এসেছেন। এরপর তারা কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে রয়েছে। সেক্ষেত্রে রাজ্য সরকারের উচিত তাদের পর্যাপ্ত খাবার ও পানীয় জলের ব্যবস্থা করার। কিন্তু তা করছে না। প্রতিবাদ করলে সুঁচ ফুটিয়ে খুনের হুমকি দিচ্ছে। এই বিষয়গুলো নিয়ে আমরা জেলাশাসক ভিডিও সঙ্গে দেখা করেছি। যাতে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার গুলি সরকারি উদ্যোগের চলে। ঘটনার তীব্র নিন্দা করছি। আর এই ঘটনার সঙ্গে যারা যুক্তি রয়েছে তাদের তদন্ত ও কঠোর শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

 

 

এরপরই শ্রমিকদের এই ভিডিও দেখে প্রশাসনের কর্তাদের মুখে কুলুপ দিয়েছে। ঘটনা ঘিরে জেলা জুড়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।মালদা জেলা পরিষদের সভাধীপতি গৌড় চন্দ্র মন্ডল, ভিন রাজ্যেও ফেরত শ্রমিকদের প্রয়োজনীয় ঔষধ দেওয়া হচ্ছে রাজ্য সরকারের উদ্যোগে। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী আমাদেরকে তদারকি করতে বলেছেন। সেইরকম সমস্ত ব্যবস্থা করা হচ্ছে পাশাপাশি চিকিৎসাও করা হচ্ছে তাদের। তবে তাদের সঙ্গে যদি কেউ দুর্ব্যবহার করে প্রশাসন ঘটনার তদন্ত করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে।

Related Articles

Back to top button
Close