fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

রাজ্যে ISI-এর মতো জঙ্গীগোষ্ঠী লালিত পালিত হচ্ছে…মালদার বিস্ফোরণে NIA তদন্তের দাবি সৌমিত্রের

জয়দেব লাহা, দুর্গাপুর: “মালদার সুজাপুরের ওই কারখানায় প্লাস্টিক তৈরি হচ্ছিল না বোমা তৈরি হচ্ছিল? না, অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট মজুত ছিল? যে কারণ এতবড় বিস্ফোরণ হতে পারে। মালদার ঘটনা ফিরহাদ হাকিম পুলিশকে দিয়ে চাপা দেওয়ার চেষ্টা করছে। তথ্য লোপাটের চেষ্টা করছে। পশ্চিমবঙ্গে আইএসআই সহ বিভিন্ন জঙ্গীগোষ্ঠী লালিত পালিত হচ্ছে। তাই এনআইএ তদন্তের দাবি করছি। এবং রাজ্যজুড়ে বিজেপি যুব মোর্চা আন্দোলনে নামবে। বৃহস্পতিবার দুর্গাপুরে এমন বিষ্ফোরক প্রশ্ন তুলেলন বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ।

প্রসঙ্গত, বিহারের পর পশ্চিমবঙ্গকে পাখির চোখ করে ময়দানে নেমেছে গেরুয়া শিবির। গত দুদিন ধরে দুর্গাপুরে একটি হোটেলে দলের রাঢ়বঙ্গ জোনের বৈঠক চলছে। বিজেপির সাংগঠনিক ৭ জেলার কার্যকর্তাদের নিয়ে পর্যায়ক্রমে বৈঠক করছেন জোনের বিশেষ পর্যবেক্ষক বিনোদ সনকার। এদিন ওই কর্মসুচীতে যোগ দেন সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। বৈঠকের বিরতিতে সৌমিত্র খাঁ সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন। আগাগোড়া রাজ্যসরকারকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন তিনি। এমনকি কয়েকদিন পরই মুখমন্ত্রীর বাঁকুড়া সফরকে ঘিরে বিষ্ফোরক অভিযোগ তোলেন তিনি।

এদিন সৌমিত্র খাঁ বলেন,” অতীতে ছত্রধর মাহত ও কিষেণজির র মত মাওবাদী নেতারা জ্ঞানশ্বরীর মত ট্রেনে নাশকতা করেছে। মমতা ব্যানার্জি আবারও আসছেন মাওবাদি তৈরি করতে।”

তিনি বলেন, “সারা দেশে আদিবাসীরা ভাল থাকলেও পশ্চিমবঙ্গে আদিবাসীরা ভালো নেই। গত ১০ বছরে বিরষা মুন্ডার মুর্তি নিয়ে কথা বললেন না। এখন বলছেন ৪০ লক্ষ টাকা দিয়ে মূর্তি বসাবেন। গত ১০ বছরে কেন করলেন না? কেন গেছেন আদিবাসীদের? মমতা ব্যানার্জী মিথ্যা কথা বলে ভাঁওতাবাজি শুরু করেছেন।” তিনি অভিষেক ব্যানার্জি নাম না করে তোপ দেগে আরও বলেন,” এখন কয়লা, গরু পাচারে তদন্ত হচ্ছে। কেন্দ্রীয় সরকার সঠিক তদন্ত করবে। পশ্চিমবঙ্গের ভাইপো কোটি কোটি টাকার মালিক হচ্ছেন কিভাবে? তার সঙ্গে জৈনিক মিশ্র ছিলেন। সেই জৈনিক মিশ্র গ্রেফতার হচ্ছেন না কেন চিন্তিত। রাজ্যে বনকর্মী নিয়োগেও দুর্নীতি হচ্ছে। আর ভাইপো হচ্ছেন দুর্নীতি গ্রস্তের মালিক। একে একে সব ধরা পড়বে।” উল্লেখ্য, মালদার সুজাপুরে প্লাস্টিক কারখানায়

ভয়াবহ বিস্ফোরণে ৫ শ্রমিকের দেহ ছিন্নভিন্ন হয়ে গেছে। সেখানে হেলিকপ্টারে যাচ্ছেন রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।
ওই ঘটনা প্রসঙ্গে সৌমিত্র খাঁ প্রশ্ন তুলে বলেন, “পশ্চিমবঙ্গে আইএসআই সহ বিভিন্ন জঙ্গীগোষ্ঠী লালিত পালিত হচ্ছে। মালদার সুজাপুরের ওই কারখানায় প্লাস্টিক তৈরী হচ্ছিল না বোমা তৈরি হচ্ছিল? না, অ্যামোনিয়াম নাইট্রেটের মত বিষ্ফোরক মজুত ছিল? যে কারনে এতবড় বিস্ফোরণ হতে পারে। ৫ জনের দেহ ছিন্নভিন্ন হয়ে গেল। মালদার ঘটনা ফিরহাদ হাকিম পুলিশকে দিয়ে চাপা দেওয়ার চেষ্টা করছে। তথ্য লোপাটের চেষ্টা করছে। তাই এনআইএ তদন্তের দাবি করছি।”

আরও পড়ুন: জগদ্দলে তৃণমূল কর্মীকে কুপিয়ে খুন

এদিন শুভেন্দু অধিকারীর বিজেপিতে আসার সম্ভাবনা প্রসঙ্গে নিজের যোগদানের প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন,” রাজ্যে বিজেপি নিশ্চিত চলে এসেছে। এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা। ২০১৯ সালে সবাই যখন বিরোধিতা করেছিল। তখন আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম বিজেপিতে যোগদানের। আজ সেই সিদ্ধান্ত সঠিক বলে মনে হচ্ছে। তাই কারও ইচ্ছা থাকলে আসতে পারে।”

Related Articles

Back to top button
Close