fbpx
আন্তর্জাতিকহেডলাইন

করোনায় লক্ষাধিক মৃত্যু, তবুও বোলসোনারোর পক্ষেই অর্ধেক মানুষ: সমীক্ষা

ব্রাজিল,রিও ডি জেনেরিও (সংবাদ সংস্থা): ব্রাজিলে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ দ্রুতগতিতে ছড়িয়ে পড়ার কারণে বোলসোনারো সরকারের অদক্ষতা এবং পদক্ষেপ না নেওয়াকেই দায়ী করেছেন অনেকেই।

কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ের এক সমীক্ষা বলছে ভিন্ন কথা। নতুন ওই সমীক্ষা অনুযায়ী, করোনা পরিস্থিতির জন্য ব্রাজিলের অর্ধেক সংখ্যক মানুষই প্রেসিডেন্ট জেইর বোলসোনারোকে দোষী মনে করেন না। তাদের মতে, করোনা পরিস্থিতির জন্য বোলসোনারোকে দায়ী করা উচিত নয়।

প্রায় অর্ধেক ব্রাজিলিয়ানই মনে করেন যে, সারাদেশে করোনায় এক লক্ষের বেশি মৃত্যুর ঘটনায় জেইর বোলসোনারোর কোনও দায়বদ্ধতা নেই। সাম্প্রতিক সময়ে ‘ডেটাফোলহা’ সমীক্ষায় এই তথ্য উঠে এসেছে। শনিবার ব্রাজিলের ‘ফোলহা ডে সাও পাওলো’ পত্রিকায় ওই সমীক্ষা প্রকাশিত হয়েছে। পত্রিকার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রায় ৪৭ শতাংশ ব্রাজিলিয়ান করোনায় মৃত্যুর ঘটনায় বোলসোনারোকে কোনো দোষ দিচ্ছে না। অপরদিকে ১১ শতাংশ মানুষ তাকে এজন্য দায়ী করছেন। জানা যাচ্ছে, ডেটাফোলফা গত ১১-১২ আগস্ট ২ হাজার ৬৫ জনের ওপর সমীক্ষা চালায়। সেখানেই বোলসোনারোর প্রতি অধিকাংশ মানুষ তাদের সমর্থন জানিয়েছেন।

আরও পড়ুন:সংক্রমণের রেকর্ডেও বাড়ল সুস্থতা! রাজ্যে ২৪ ঘন্টায় নতুন আক্রান্ত ৩০৬৬, মৃত ৫১, সুস্থ ২৯৩৫

প্রসঙ্গত, এখন পর্যন্ত লাতিন আমেরিকায় শীর্ষে রয়েছে ব্রাজিল। এমনকী যুক্তরাষ্ট্রের পর সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ এবং মৃত্যু দেখেছে ব্রাজিল। তাই, করোনা মহামারীতে বোলেসোনারো সরকার বিশ্বজুড়ে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের সমালোচনার শিকার হচ্ছেন। কারণ প্রথম থেকেই তারা এ বিষয়ে কঠোর বিধি-নিষেধ আরোপ করতে ব্যর্থ হয়েছেন তিনি। ডানপন্থি এই নেতা শুরু থেকেই এই প্রাণঘাতী ভাইরাসের চিকিৎসায় ম্যালেরিয়ার ওষুধ হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ব্যবহারের পক্ষে সাফাই গেয়ে আসছেন। তার এজেন্ডার বাইরে যাওয়ায় স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে সরিয়ে দিয়েছেন তিনি। এমনকি তিনি দেশজুড়ে লোকজনকে লকডাউনের বিপক্ষে অবস্থানের জন্য উৎসাহ দিয়েও গেছেন।

সাম্প্রতিক সময়ে বোলসোনারো নিজে এবং তার পরিবারের বেশ কয়েকজন সদস্যও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। যদিও তিনি করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন। তার স্ত্রী ফার্স্ট লেডি মিশেল বোলসোনারো গত জুলাইতে করোনায় আক্রান্ত হন।
একইসঙ্গে, বেশ কিছুদিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকার পর চলতি সপ্তাহে বোলসোনারোর ঠাকুমা করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান।

আরও পড়ুন:পুলিশকে দিয়ে জুতো চাটা করাবোই, ফের হুঁশিয়ারী বিজেপি নেতা রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়ের

তথ্য বলছে, লাতিন আমেরিকার দেশগুলোতে ভয়াবহ তাণ্ডব চালাচ্ছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। ইতিমধ্যেই ব্রাজিল, মেক্সিকো, পেরু, চিলি-সহ লাতিন আমেরিকার বিভিন্ন দেশে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৬০ লক্ষ ছাড়িয়ে গেছে। শুধু ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩৩ লক্ষ ১৭ হাজার ৮৩২ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ১ লক্ষ ৭ হাজার ২৯৭ জন।

Related Articles

Back to top button
Close