fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

সুন্দরবনে আমফান ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে মন্ত্রী গৌতম দেব

বাবলু প্রামানিক,দক্ষিণ২৪পরগনা:  শনিবার সুন্দরবনে আমফন ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে গেলেন পযটন মন্ত্রী গৌতম দেব। জানা গিয়েছে, এদিন সকাল সাড়ে ১০ টায় দক্ষিণ ২৪ পরগনার সুন্দরবনের গোসাবা বিধানসভা কেন্দ্রের সাতজেলিয়া অঞ্চলের দয়াপুরের বিনাপানি নদীপাড়া এলাকায় ঘূর্ণিঝড় আমফানের দাপটে ক্ষতিগ্রস্ত সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথা বলেন রাজ্যের পযটন মন্ত্রী গৌতম দেব। সেখানে আমফানে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদের সঙ্গে মন্ত্রী  কথাবার্তা বলে জলপথে লঞ্চে করে চলে যায় সজনেখালিতে। এদিন উপস্থিত ছিলেন গোসাবা বিডিও সৌরভ মিত্র,জেলা পরিষদের সদস্য অনিমেষ মন্ডল সহ বিভিন্ন দফতরের আধিকারিকরা।

প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে গত ১১ সেপ্টেম্বর সড়ক পথে রাজ্যের মন্ত্রী গৌতম দেব আসেন গদখালিতে।সেখান থেকে জলপথে লঞ্চ করে যায় পাখিরালয়ে। সেখানে মন্ত্রী গৌতম দেব ট্যুর ও লঞ্চ অ্যাসোসিয়ানের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন। ট্যুর ও লঞ্চ অ্যাসোসিয়ানের সদস্যরা জানান প্রতি বছর সরকারি নিয়ম অনুযায়ী বর্ষাকালে ট্যুর বন্ধ থাকে।কারণ এই সময় সুন্দরবনের নদী গুলিতে খুব রোলিং হয়।তবে ১৫ সেপ্টেম্বরের পর থেকে সেই নিষেধাজ্ঞা উঠে যায়।তাই সঠিক সময়ে যাতে সুন্দরবন ট্যুর চালু হয় তার জন্য মন্ত্রীর কাছে আবেদন জানায় তারা। রাজ্যের মন্ত্রী গৌতম দেব জলপথে সুন্দরবনের বিভিন্ন অঞ্চল পরিদর্শন করে।

আরও পড়ুন: সৌমিত্র খাঁ’কে গ্রেফতারের প্রতিবাদে জাতীয় সড়ক অবরোধ যুব মোর্চার 

পাশাপাশি সুন্দরবনের সৌন্দর্য কিভাবে বৃদ্ধি করা যায় সেদিকেও লক্ষ্য দেন মন্ত্রী।এদিকে জেলা পরিষদের সদস্য অনিমেষ মন্ডল দয়াপুরে একটি হোমস্টে করার প্রস্তাব দেয়। মন্ত্রী এ বিষয়ে প্রতিশ্রুতি দেয় বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখার জন্য।রাজ্যের মন্ত্রী গৌতম দেব জানান আমফানের ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারদের সঙ্গে কথাবার্তা হয়।তারা বলেছে সরকারি ক্ষতিপূরণ পেয়েছে।সুন্দরবনের বিভিন্ন অঞ্চল এবং নদী বাঁধ পরিদর্শন করা হয়।পাশাপাশি সুন্দরবনের সৌন্দর্য বৃদ্ধি বিষয়টিও দেখা হচ্ছে।যেহেতু আমফানে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সুন্দরবন।

Related Articles

Back to top button
Close