fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

মালদহের দুঃস্থ মেধাবী ছাত্রের পাশে দাঁড়ালেন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী

ভীষ্মদেব দাশ, পূর্ব মেদিনীপুর: মালদহের দুঃস্থ ছাত্রের পাশে দাঁড়ালেন নন্দীগ্রামের বিধায়ক ও রাজ্যের মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট দেখে দুঃস্থ ছাত্রের খোঁজ নেন কাঁথির শিক্ষক। কথা বলেন ছাত্রের সঙ্গে। অবগত করেন পূর্ব মেদিনীপুর জেলার কাঁথির ভূমিপুত্র শুভেন্দুবাবুকে। খবর পেয়েই পাশে দাঁড়ান তিনি। সারা দেশজুড়ে করোনা সংক্রমণ রুখতে চলছে লকডাউন।

সারা দেশবাসীর লড়াই অদৃশ্য শত্রুর বিরুদ্ধে হলেও এক অন্য লড়াইয়ে সামিল মালদহের হরিশচন্দ্রপুর-১ ব্লকের কনুয়া হাইস্কুলের দ্বাদশ শ্রেণীর ফার্স্ট বয় সঞ্জয় রবিদাস। মা ও ছেলের সংসার। বিধবা মা অন্যের জমিতে চাষের কাজ করেন। আর পড়াশোনার ফাঁকে সঞ্জয় জুতো সেলাইয়ের কাজ করে। লকডাউনের ফলে বন্ধ কাজকর্ম। চলতি বছরের উচ্চ-মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী কার্যত অনাহারে দিন কাটাচ্ছে।

এই খবর সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে জানতে পারেন কাঁথি মহকুমার বাদলপুর বিদ্যাভবন এর শিক্ষক রত্নদীপ সামন্ত। শিক্ষক রত্নদীপ বাবু, শুভেন্দু বাবুকে সমস্ত ব্যাপারটি অবগত করান। ছেলেটির সঙ্গে যোগাযোগও করিয়ে দেন রত্নদীপবাবু। এরপরই বুধবার সঞ্জয়-এর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে আর্থিক সাহায্য পাঠিয়ে দেন ও ভবিষ্যতেও তাঁর পাশে থাকবেন বলে আশ্বাস দেন শুভেন্দু অধিকারী।

আপ্লুত সঞ্জয় বলে, আমি ভাবতেও পারিনি সুদূর পূর্ব মেদিনীপুর থেকে মালদার প্রত্যন্ত গ্রামে শুভেন্দু স্যর এই দুর্দিনে আমার পাশে এসে দাঁড়াবেন। আমি কৃতজ্ঞ ওঁনার কাছে। শিক্ষক রত্নদীপ সামন্ত বলেন, শুভেন্দু অধিকারী শুধুমাত্র নেতা বা মন্ত্রী নন। আসলে উনি প্রথম আর শেষে প্রকৃত অর্থেই আদ্যোপান্ত একজন মানুষ।

Related Articles

Back to top button
Close