fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

শিলিগুড়িতে বিভিন্ন দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ শতাধিক পরিবারের

কৃষ্ণা দাস, শিলিগুড়ি: বিধানসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে দলবদল অব্যহত। রেশন দূর্নীতিসহ প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার দুর্নীতিতে বিশ্রদ্ধ হয়ে ও কেন্দ্র সরকারের যোজনায় সন্তুষ্ট হয়ে তৃণমূল,  সিপিএম, কংগ্রেস ছেড়ে ১২০ টি পরিবারের চারশতাধিক মানুষ বিজেপিতে যোগদান করল। মঙ্গলবার শিলিগুড়ি মহকুমা পরিষদের অন্তর্গত ফাঁসিদেওয়া ব্লকের রানীগঞ্জ বিন্নাবাড়ি মণ্ডলে পানিট্যাঙ্কির কাছাকাছি হাইবিট বস্তি গ্রামে আনুষ্ঠানিকভাবে tতাদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন শিলিগুড়ি সাংগঠনিক জেলা বিজেপি সভাপতি প্রবীণ আগরওয়াল।

এছাড়া উপস্থিত ছিলেন শিলিগুড়ি সাংগঠনিক জেলার পর্যবেক্ষক দ্বীপ্তিমান সেনগুপ্ত, জেলা বিজেপি সাধারণ সম্পাদক মনোরঞ্জন মন্ডল, রাজু সাহা, সভাপতি রাজ ভট্টাচার্য সহ অন্যান্যরা। শিলিগুড়ি সাংগঠনিক জেলা বিজেপি পর্যবেক্ষক  দ্বীপ্তিমান সেনগুপ্ত বলেন, এই এলাকার মানুষরা বাড়িঘর বিলি বন্টনকে কেন্দ্র করে ও সংলগ্ন শ্মশানকে কেন্দ্র করে রাজ্য সরকারের ও স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েতের ওপর ক্ষোভ জন্মায়, সে কারণেই ক্ষুব্ধ হয়ে এলাকাবাসীরা কেন্দ্রীয় সরকারের ওপর আস্থা রেখে বিভিন্ন দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করে।

বিজেপি সাধারণ সম্পাদক মনোরঞ্জন মন্ডল বলেন,  প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা থেকে এলাকার গরীব মানুষ বঞ্চিত। যাদের পাকা বাড়ি রয়েছে তারাই আবার আবাস যোজনার টাকা পাচ্ছে। এদিকে কৃষকদের জন্য কেন্দ্র সরকার থেকে বছরে ছয় হাজার টাকা করে দেওয়ার কথা ঘোষনা করা হয়, তাও কৃষকরা পাচ্ছে না। পাশাপাশি তৃণমূলের রেশন দূর্নীতিতে কেন্দ্র সরকারের দেওয়া ভালো চালের পরিবর্তে পোকা খাওয়া চাল মানুষদের দেওয়ায় সাধারন মানুষ ক্ষুব্ধ। সেই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর উজ্জ্বলা যোজনা, শৌচালয়ে তৈরী করে দেওয়ায় স্থানীয়রা সন্তুষ্ট। তাই স্থানীয়রা মনে করছে রাজ্যে বিজেপি এলে তারা আরও নানা সুযোগ সুবিধা পাবে। সে কারনেই বিভিন্ন দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করল।

Related Articles

Back to top button
Close