fbpx
আন্তর্জাতিকবিনোদন

মোজাম্বিকে ৫০ জনকে গলা কেটে হত্যা, তদন্তের আহ্বান রাষ্ট্রপুঞ্জের

ইসলামপন্থী সন্ত্রাসবাদ রুখতে এগিয়ে আসার আহ্বান ম্যাক্রোঁর

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: নিউইয়র্ক ও প্যারিস: মোজাম্বিকের কাবো দেলগাদোয় ৫০ জনেরও বেশি মানুষেকে গলা কেটে হত্যার ঘটনায় তদন্তের আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপুঞ্জের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস। এছাড়া, এক টুইট বার্তায় ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ জানিয়েছেন,‘মোজাম্বিকে ৫০ জনেরও বেশি মানুষের শিরশ্ছেদ করা হয়েছে, মেয়েদের অপহরণ করা হয়েছে, গ্রামগুলো লুট করে আগুন জ্বালিয়ে দেওয়া হচ্ছে। সন্ত্রাসের বীজ বপনের জন্য একটা ধর্মকে ব্যবহার করছে বর্বররা। ইসলামপন্থী সন্ত্রাসবাদ একটি আন্তর্জাতিক হুমকি, যা প্রতিহত করতে আন্তর্জাতিকভাবে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।’

সূত্রের খবর, গত ৩১ অক্টোবর থেকে কাবো দেলগাদোর বিশাল অংশে কয়েক মাস ধরে টানা নৃশংস হত্যাকাণ্ড চালিয়ে আসছে মোজাম্বিকের বিদ্রোহীরা। এই বিদ্রোহীদের সঙ্গে জোটবদ্ধ হয়েছে জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস)। সম্প্রতি তারাই, কাবো দেলগাদোয় একটি গ্রামে নারী-শিশুসহ ৫০ জনেরও বেশি মানুষেকে গলাকেটে হত্যা করেছে। মোজাম্বিকে কিভাবে হত্যাযজ্ঞ চালাচ্ছে সন্ত্রাসীরা, তার কিছু ঘটনা সামনে এসেছে। হামলা থেকে বেঁচে যাওয়া মোজাম্বিকের মাইদুম্বে জেলার এক বাসিন্দা জানিয়েছেন, তার পরিচিত অন্তত ৫ জনকে হত্যা করা হয়েছে। যাদের মরদেহ পচে যাওয়ার আগে মাথা কেটে গর্তে ও রাস্তার পাশে ফেলে দেয় সশস্ত্র জঙ্গিরা।

আরও পড়ুন- ফের ইরানের বিরুদ্ধে কঠিন পদক্ষেপের ডাক সৌদি বাদশার

শুধু তাই নয়,  প্রাণনাশের ভয়ে নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক ব্যক্তি জানিয়েছেন, কাবো দেলগাদো থেকে মাইদুম্বে পালিয়ে আসতে চাওয়া একটি দলে তার মা-ও ছিলেন। তারা যখন বুঝতে পেরেছিল যে বিদ্রোহীরা পুরো শহর দখল করে রেখেছে, তখন তারা পালানোর চেষ্টা করে। পালানোর সময় বেশ কয়েকজনের মরদেহ দেখতে পেয়েছিল তারা। জঙ্গিরা সেখানকার ঘরবাড়িগুলো পুড়িয়ে দিচ্ছে। গ্রামগুলো থেকে এখনও ধোঁয়া উড়ছে। এছাড়া, দেলগাদোর এক পুরোহিত বলেন, তার পুরো পরিবারকে হত্যা করা হয়েছে। আর আত্মীয়-স্বজনসহ অন্যরা এলাকা ছেড়ে পালিয়ে গেছে। প্রাণ হারানোর ভয়ে সবাই এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছে।

মোজাম্বিকে তিন বছর ধরে সশস্ত্র জঙ্গিদের চালানো এসব হামলার ঘটনায় বিভিন্ন আন্তর্জাতিক মহল নিন্দা জানিয়েছে। জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট এমারসন মানগাওয়া এক টুইট বার্তায় বলেছেন, ‘এ ধরনের বর্বর আচরণ যেখানে মাথাচড়া দেবে, সেখান থেকে এর মূলসহ উপড়ে ফেলতে হবে। জিম্বাবুয়ে যেকোনো ধরনের সহায়তা করতে প্রস্তুত।’ মোজাম্বিকের পাশে দাঁড়াতে ব্রিটেনের বিদেশ সচিব ডোমিনিক রাব এক টুইট বার্তায় জানিয়েছেন, ‘ক্যাবো দেলগাদো প্রদেশে কয়েক ডজন মানুষকে শিরশ্ছেদ করে হত্যার ঘটনায় ব্রিটেন হতবাক। এটা উত্তর-পূর্ব মোজাম্বিকের ক্রমবর্ধমান আক্রমণের ঘটনার একটা অংশ। এ দ্বন্দ্ব মোকাবিলায় আমরা মোজাম্বিক সরকারের পাশে আছি।’

উল্লেখ্য, ২০১৭ সাল থেকে মোজাম্বিকের গ্যাসসমৃদ্ধ কাবো দেলগাডো অঞ্চলে এ ধরনের হামলা চালিয়ে আসছে সশস্ত্র জঙ্গিরা। এখন পর্যন্ত সেখানকার ২ হাজারের বেশি মানুষকে হত্যা করেছে তারা। এছাড়া তাদের অত্যাচার-নির্যাতনে প্রাণ হারানোর ভয়ে ঘর ছেড়েছে ৪ লক্ষেরও বেশি মানুষ।

 

Related Articles

Back to top button
Close