fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

মাটি খুঁড়তেই উদ্ধার মোঘল আমলের মোহর

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: অনুর্বর জমি উর্বর করার কাজ চলছিল। সেইসময় জেসিবি দিয়ে মাটি খুঁড়তেই বেরিয়ে এল একটি ধাতুর ঘড়া। বিভিন্ন নকশা আঁকা ওই ঘড়ায় ২০০টি রূপোর মোহর পাওয়া গেল। ঘটনাস্থল ঝাড়খণ্ডের পালামৌর নবডিহা গ্রাম। ওই গ্রামেই একটি জমি চাষ যোগ্য করে তোলার কাজ চলছিল। সেইসময় এই ঘড়া উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন যে, ঘড়ার মধ্যে প্রতিটি মোহরই মোঘল আমলের। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, ওই এলাকার বিভিন্ন জায়গায় মাঝেমধ্যেই একটি-দুটি করে রূপোর মোহর পাওয়া যায়।

[আরও পড়ুন- আশ্রমে বাচ্চাদের ওপর যৌন কেলেঙ্কারির অভিযোগে গ্রেফতার স্বঘোষিত গডম্যান]

জানা গিয়েছে যে, পালামৌর নবডিহা গ্রামের ওই জমি চাষের উপযোগী করার কাজ চলছিল। জেসিবি দিয়ে খনন কাজ চলছিল। সেইসময় উদ্ধার হওয়া ঘড়াটি ফেলে রেখেই চলে যান চাষিরা। মাটির মধ্যেই পড়ে ছিল ঘড়াটি। এরপর সেখানে যান সেলিম মিঞাঁ নামের একজন চাষি। তিনি ঘড়াটি দেখতে পান। সেলিম মিঞাঁ সেটি বাড়িতে নিয়ে আসে। এর পর পরিবারের অনেকে মিলে মাটিতে মোহর ফেলে গুনতে শুরু করে। এরই মধ্যে ভাইদের মধ্যে রূপোর মোহরের ভাগাভাগি হয়ে যায়। মোহর নিয়ে শুরু হয় ঝামেলা। সেই ঝামেলা গড়ায় থানা পর্যন্ত। এরপর থানা থেকেই খবর প্রকাশিত হয়। সেলিম মিঞাঁ এর পর ১০৭ টি মোহর পুলিসের কাছে জমা দেয়। যদিও পুলিশের অনুমান ওই ঘড়ায় ২০০ টিরও বেশি মোহর ছিল। বাকি মোহর উদ্ধারের কাজে নেমেছে পুলিশ। ওই এলাকার বিভিন্ন জায়গা খনন কাজে নেমেছে পুলিশ।

Related Articles

Back to top button
Close