fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

‘মুকুল রায় টাকা নেননি, দিতে বলেছিলেন মির্জাকে’! নিজাম প্যালেসে দাঁড়িয়ে বিস্ফোরক দাবি ম্যাথুর

অভীক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা: নারদকাণ্ডে ইডি থেকে সিবিআই সকলেই তাকে এখনও সন্দেহের তালিকায় রাখলেও ক্লিনচিট দিলেন খোদ ম্যাথু স্যামুয়েল। শনিবার নিজাম প্যালেসে দাঁড়িয়ে এই দাবি করলেন তিনি। ওই স্টিং অপারেশনের কর্তা ম্যাথু ব্যক্তিগত কাজে কলকাতায় এসে নিজাম প্যালেসে সিবিআইয়ের দফতরে দেখা করতে যান। তারপরেই বেরিয়ে সাংবাদিকদের সামনে এমন দাবি করেন তিনি।

 সম্প্রতি বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি পদে নির্বাচিত হয়ে ২০২১ সালে বিধানসভা নির্বাচনে গুরুদায়িত্ব পেয়েছেন মুকুল রায়। তার আগে খোদ ম্যাথু স্যামুয়েলের এমন মন্তব্য তাকে অনেকটাই স্বস্তি দিল মনে করছেন অনেকে।
নারদ কাণ্ডে স্টিং অপারেশন করে ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের আগে তোলপাড় ফেলে দিয়েছিলেন। বিভিন্ন তৃণমূল নেতাকে তার কাছ থেকে টাকার বাণ্ডিল নিতে দেখা গিয়েছিল ওই ভিডিওয়। যদিও পরে সকলেই দাবি করেন, ওই টাকা তারা পার্টি ফান্ডে অনুদান হিসেবে নিয়েছিলেন। তাদের মধ্যে ছিলেন মুকুল রায়ও।  ৬ বছর পেরিয়ে গেলেও এখনও সেই নারদ কাঁটায় বিদ্ধ তৃণমূলের নেতারা।
কিন্তু এদিন আচমকাই ম্যাথু স্যামুয়েল দাবি করলেন, তৃণমূল কংগ্রেসের প্রাক্তন সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক এবং বর্তমানে বিজেপি‌র সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি মুকুল রায় ২০১৪ সালে লোকসভা নির্বাচনের সময় নারদ স্টিং অপারেশনে তাঁর হাত থেকে টাকা নেননি। এদিন ম্যাথু বলেন, ‘মুকুল রায়ের কাছে টাকা নিয়ে যাওয়ার পরে তিনি বর্ধমানের তৎকালীন পুলিশ সুপার এসএমএইচ সৈয়দ হোসেন মির্জাকে তা দিতে বলেন। আমি ওই পুলিশকর্তাকে টাকা দিয়ে আসি।’
ভিডিও ফুটেজেও দেখা গিয়েছিল, ম্যাথু টাকার থলি নিয়ে মুকুল রায়ের সামনে গেলেও তা হাত পেতে নেননি মুকুল রায়। বরং ম্যাথুকে কিছু বলছিলেন বলে দেখা যায়। কাজেই অন্যদের মত সরাসরি দোষী দাবি করা যায় না মুকুলকে। তবে এতদিন পর হঠাৎ মুকুল রায়কে কেন ক্লিনচিট দিতে গেলেন ম্যাথু স্যামুয়েল, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছেই।

Related Articles

Back to top button
Close