fbpx
আন্তর্জাতিকদেশহেডলাইন

এবার চিনের নজরে অরুণাচল! পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে অসমে জেনারেল নারাভানে

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: লাদাখ সীমান্তে উত্তেজনার মধ্যেই এবার অরুণাচল সেক্টরে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় সন্দেহজনক তৎপরতা বাড়ছে লালফৌজের। উল্লেখ্য, LAC-র এই অংশে বিশাল সংখ্যক সেনা মোতায়েন করছে চিন। পড়শি দেশের এই প্ররোচনামূলক কার্যকলাপের উপরে সতর্ক নজর রাখছে ভারত।

এবার নিয়ন্ত্রণরেখায় বাহিনীর প্রস্তুতি খতিয়ে দেখতে বৃহস্পতিবার অসমের তেজপুর সফরে এসেছেন ভারতীয় সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল মনোজ মুকুন্দ নারাভানে। দু’দিনের সফরে তেজপুরে এসেছেন তিনি। সিকিম এবং অরুণাচলে চিনের সঙ্গে ভারতের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার সুরক্ষার দায়িত্বে আছে ভারতীয় সেনাবাহিনীর ফোর কর্পস । যার সদর দফতর অসমের তেজপুরে।

আরও পড়ুন: এবার কর্নাটকে হবে হনুমানের ২১৫ মিটারের মূর্তি! খরচ প্রায় ১২০০ কোটি

প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় সাম্প্রতিক ঘটনাবলী সম্পর্কে জেনারেল নারাভানেকে বিশদে জানান ইস্টার্ন কমান্ডের জিওসি লেফটেন্যান্ট জেনারেল অনিল চৌহান। পরিস্থিতি মোকাবিলায় নিরাপত্তা বাহিনীর তরফে কী কী পদক্ষেপ করা হয়েছে, সেই বিষয়েও অবহিত করা হয় তাঁকে। সামগ্রিকভাবে সামরিক প্রস্তুতি সম্পর্কে খোঁজখবর নেন তিনি। সে সময় পূর্ব লাদাখে উদ্ভূত পরিস্থিতির প্রেক্ষাপটে সিকিম এবং অরুণাচলে বাহিনীকে LAC-তে বাহিনীকে তিনি চূড়ান্ত সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়েছেন বলে সূত্রের খবর।

চলতি বছর মে মাসের শুরু থেকেই পূর্ব লাদাখে ভারত-চিন সীমান্ত সংঘাতে জড়িয়ে পড়ে। তা চরম আকার নেয় ১৫ জুন রাতে। পূর্ব লাদাখের গলওয়ান উপত্যকায়। লালফৌজের অতর্কিত হামলায়, রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে শহিদ হন ২০ ভারতীয় জওয়ান।
পূর্ব লাদাখে সীমান্ত বরবার এখনও প্রায় ৪০ হাজার সেনা মোতায়েন রেখেছে চিন। অথচ দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে বারবার লাদাখের ওই অঞ্চল থেকে সেনা সরানোর কথা বলেছিল তাঁরা। বাস্তবে তেমনটা কোনওভাবেই করছে না চিন।

চিন-ভারত সীমান্তের দৈর্ঘ্য চার হাজার কিলোমিটার। এর চার ভাগের এক ভাগ অরুণাচল প্রদেশেই। খবরে প্রকাশ, উত্তর সিকিম ও অরুণাচল প্রদেশের কিছু অংশ লিপুলেখ পাসে এলএসি অতিক্রম করে ঢুকে পড়ছে লালফৌজ। অরুণাচল, সিকিমে চিনের বাড়াবাড়ির কথা মাথায় রেখে গত কয়েক বছরে পূর্বাঞ্চলে পরিকাঠামো উন্নয়নে জোর দিয়েছে কেন্দ্র। বাংলার পানাগড়ে মিলিটারি ট্রান্সপোর্ট এয়ারক্রাফট সি ১৩০ জে সুপার হারকিউলিসের ঘাঁটি বানানো হয়েছে। সেনাবাহিনীর মাউন্টেন স্ট্রাইক কোরের ডিভিশন হয়েছে পানাগড়েই। উত্তরবঙ্গের হাসিমারায় ফরাসি যুদ্ধবিমান রাফালের ঘাঁটি তৈরি হচ্ছে। এই আয়োজন সবই চিনের কথা মাথায় রেখে।

Related Articles

Back to top button
Close