fbpx
কলকাতাহেডলাইন

প্রোটোকল মেনে জীবাণু মুক্ত না করার মত একাধিক অভিযোগ, করোনা পরীক্ষার অনুমতি প্রত্যাহার সুরক্ষা ল্যাবে

অভীক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা: রাজ্যে করোনা টেস্টের সংখ্যা বাড়ানোর জন্য সরকারি ল্যাবের পাশাপাশি বেসরকারি ল্যাবগুলিকেও ছাড়পত্র দিয়েছিল রাজ্য। তার জেরেই দৈনিক ১০ হাজার টেস্টের লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছতে পেরেছে রাজ্য। এমনকি সাধারণ মানুষের কাছেও অনেক সহজ হয়ে গিয়েছে করোনা পরীক্ষা। কিন্তু সঠিক প্রোটোকল মেনে জীবাণু মুক্ত না করার অভিযোগে এবার বন্ধ করে দেওয়া হল সুরক্ষা ল্যাব।

গত ২৪ এপ্রিল থেকে বেসরকারি সুরক্ষা ডায়াগনস্টিকসে রাজ্যে আইসিএমআর-এর গাইডলাইন অনুযায়ী করোনা পরীক্ষা করার ছাড়পত্র পায়। এখনো অবধি প্রায় ২৭ হাজার নমুনা পরীক্ষা করেছে এই বেসরকারি ল্যাব। কিন্তু গত বেশ কয়েকদিন ধরেই এই ল্যাবের বিরুদ্ধে বিস্তর অভিযোগ উঠছিল। চিকিৎসক থেকে শুরু করে রোগীর পরিবার অভিযোগ করেছিল যে অনেক ক্ষেত্রেই ফলস পজিটিভ বা ফলস নেগেটিভ রিপোর্ট আসছে। যা পরবর্তীতে পরীক্ষার হিসেবে সঙ্গে মিলছে না। এর ফলে পরবর্তীতে চিকিৎসার খুব অসুবিধা হচ্ছে।

সম্প্রতি রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিকরা এই ল্যাবে অভিযান চালান। এরপরই এই ল্যাবের সিইও কে চিঠি দিয়ে রাজ্যের স্বাস্থ্য অধিকর্তা অজয় চক্রবর্তী জানান, আপাতত সুরক্ষা ডায়াগনস্টিকস করোনা পরীক্ষা করতে পারবে না। করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনাও সংগ্রহ করতে পারবে না। কারণ দেখা গিয়েছে আইসিএমআর-এর প্রোটোকল অনুযায়ী ল্যাব এবং ল্যাবের যন্ত্রপাতি জীবাণুমুক্ত করা হচ্ছে না।

আরও পড়ুন: করোনা মোকাবিলায় শহরে চালু ‘কোভিড কেয়ার নেটওয়ার্ক’, থাকছেন চিকিৎসক-করোনাজয়ী-বিশিষ্ট ব্যক্তিত্বরা

স্বাস্থ্য দফতরের পরিদর্শনের সময়েও স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রোটোকল বা এসওপি মানা হয়নি। এখানকার মলিকুলার ল্যাবে করোনা আক্রান্ত সন্দেহে ব্যক্তির পরীক্ষার জন্য আর টি – পি সি আর পদ্ধতি ব্যবহার করা হচ্ছে। কোনও মাইক্রোবায়োলজিস্ট এখানকার করোনা পরীক্ষা এর সঙ্গে যুক্ত নয়। সমস্ত কিছু বিচার বিশ্লেষণ করে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর এই ল্যাবের করোনা পরীক্ষা করার অনুমতি প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্বাস্থ্য দফতর।

Related Articles

Back to top button
Close