fbpx
একনজরে আজকের যুগশঙ্খকলকাতাশিক্ষা-কর্মজীবন

স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ডে ঋণ দিচ্ছে না একাধিক ব্যাঙ্ক, জেলাশাসকদের নজরদারির নির্দেশ নবান্নের

নিজস্ব প্রতিনিধি:একুশের বিধানসভা নির্বাচনের আগে তৃণমূলের অন্যতম প্রতিশ্রুতি ছিল স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড। ক্ষমতায় এসে সেই প্রতিশ্রুতি রক্ষা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু অভিযোগ বেশ কয়েকটি ব্যাঙ্ক পড়ুয়াদের ক্রেডিট কার্ডের ভিত্তিতে ঋণ দিতে অস্বীকার করছে। এই খবর পাওয়ার পর প্রতিটি জেলা প্রশাসনকে বিশেষ নজর দেওয়ার নির্দেশ দিল নবান্ন।

অর্থের অভাবে অতীতে ছাত্র-ছাত্রীদের পড়াশোনা চালাতে অসুবিধা হয়েছে, এমন উদাহরণ বহু আছে। তাই রাজ্যের ছাত্রছাত্রীদের উচ্চশিক্ষায় যাতে অর্থের কোনও অভাব না হয়, তার জন্য ঋণের সংস্থান করে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। চালু করেছেন স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড। বহু ছাত্রছাত্রী এ রাজ্যে পড়ার পাশাপাশি দেশের অন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পড়ার জন্য প্রয়োজনীয়  অর্থ পাচ্ছেন এই প্রকল্প থেকে। কিন্তু বেশ কিছু ব্যাঙ্ক ছাত্রছাত্রীদের ঋণ দিতে চাইছে না বলে বেশ কিছুদিন ধরেই অভিযোগ উঠেছে। নানা অজুহাত খাড়া করে তাঁদের হয়রানি করছে সেই সমস্ত ব্যাঙ্ক। বিষয়টি রাজ্য সরকার জানার পরেই নড়েচড়ে বসেছে। একাধিকবার ব্যাঙ্কগুলিকে সতর্ক করা হয়েছে। কিন্তু তাতে কাজ হয়নি বলে অভিযোগ।

সম্প্রতি নবান্নে স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড নিয়ে একটি পর্যালোচনা বৈঠক হয়। সেখানে যে ব্যাঙ্কগুলি ঋণ দিতে চাইছে না, তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে ঠিক হয়। প্রশাসন সূত্রে খবর, বেশ কিছু সমবায় ব্যাঙ্ক স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ডে ছাত্রছাত্রীদের ঋণ দিচ্ছে না। সংশ্লিষ্ট জেলাশাসকদের এ বিষয়ে নজর দিতে নির্দেশ দিয়েছে নবান্ন। ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে ঋণ দেওয়ার ব্যাপারে সমস্যা নিয়ে আলোচনার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে জেলা শাসকদের। সেই সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে দ্রুত সমাধান সূত্র বের করার কথাও বলা হয়েছে।

এদিকে দুয়ারে রেশন প্রকল্পে যাতে সঠিক পরিমাণ খাদ্যদ্রব্য উপভোক্তাদের কাছে পৌঁছয়, তার জন্য কড়া নজরদারি চায় নবান্ন।  উপভোক্তারা প্যাকেটজাত এই রেশনে প্রত্যেকটি জিনিস যাতে ঠিকঠাক পরিমাণে পান, তার জন্য ব্যবস্থা নিতে জেলাশাসকদের নির্দেশ দিল নবান্ন। একইসঙ্গে বাকি থাকা রেশন কার্ডের সঙ্গে আধার কার্ডের যোগ দ্রুত করে ফেলার কথাও বলা হয়েছে।

নবান্ন সূত্রে খবর, ছট পুজোর পরই দুয়ারে রেশন প্রকল্পের কাজ পুরোদমে চালু করে দিতে চায় রাজ্য সরকার। তা নিয়েই পর্যালোচনা বৈঠক করেন মুখ্যসচিব। সেখানে ছিলেন জেলাশাসকরা।  অনেক সময় রেশনে কম পরিমাণে জিনিস দেওয়ার অভিযোগ তোলেন উপভোক্তারা। তা নিয়ে অশান্তিও হয় অনেক জায়গায়। সেক্ষেত্রে দুয়ারে রেশন প্রকল্পে যখন চাল, গম বা অন্যান্য খাদ্যদ্রব্য উপভোক্তার দুয়ারে পৌঁছে দেওয়া হবে, তখন যদি এই ধরনের অভিযোগ ওঠে, তাহলে একদিকে যেমন সরকারের ভাবমূর্তির সমস্যা হবে, তেমনই ডিলারদের কেন্দ্র করে আইনশৃঙ্খলার সমস্যা হতে পারে। এই সমস্যা যাতে না হয়, তার জন্য জেলাশাসকদের আগাম ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।  ইতিমধ্যেই রাজ্য সরকার রেশন কার্ডের সঙ্গে আধার কার্ডের যোগ করে ফেলেছে। সামান্য কিছু বাকি রয়েছে বলে খবর। সেই কাজও দ্রুত শেষ করার কথা বলা হয়েছে। যাতে রেশন পাওয়ার ক্ষেত্রে উপভোক্তাদের কোনও সমস্যা না হয়।

Related Articles

Back to top button
Close