fbpx
দেশহেডলাইন

কান্না থামাতে সন্তানকে শ্বাসরোধ করে খুন, গ্রেফতার বাবা

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: চার বছরের শিশু সন্তানের কান্না থামাতে গিয়ে খুন করার অভিযোগ তার বাবার বিরুদ্ধে। ঘটনায় অভিযুক্ত বাবাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ধৃতের নাম বাসুদেব গুপ্তা। গাজিয়াবাদ শহরের ঘটনা। সন্তানকে খুন করে তোয়ালে জড়িয়ে দেহ অটোরিকশার মধ্যে লুকিয়ে রেখেছিল বাসুদেব। সেই অবস্থায় অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে পুলিশ। দেহ ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে।

ধৃতের ভাই রবির অভিযোগের ভিত্তিতে বাসুদেবকে গ্রেফতার করে পুলিশ। রবি জানিয়েছেন বৃহস্পতিবার ভোর ৫টা নাগাদ বাসুদেবের বাড়ি গিয়ে তিনি দেখেন তার ঘরের দরজা খোলা। রবি তার নাম ধরে ডাকতেই বাসুদেব জানায়, সে তার স্ত্রীকে খুঁজতে নয়ডা গিয়েছিল। তখন অটোরিকশার মধ্যে সে তার সন্তানকে খুন করেছে। এরপরেই রবি পুলিশকে ফোন করে সমস্ত কথা জানায়।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, বাসুদেব গুপ্তা পেশায় একজন অটোরিকশা চালক। সুলতানপুরে একটি ভাড়া বাড়িতে স্ত্রী তিন বছরের ছেলে ও চার বছরের শিশু সন্তানকে নিয়ে থাকত। স্ত্রী একট স্পা-য়ে কর্মরত। ২০ দিন আগে বাসুদেবের সঙ্গে ঝগড়া করে তিন বছরের ছেলেকে নিয়ে চলে যা্ন স্ত্রী। শিশু সন্তানটি তার বাসুদেবের কাছেই ছিল। স্ত্রী চলে যাওয়ার পর থেকেই তাকে খুঁজতে শুরু করে বাসুদেব। বৃহস্পতিবার নিজের অটোরিকশা নিয়ে স্ত্রীকে খুঁজতে বেরিয়ে পড়ে বাসুদেব। সঙ্গে ছিল তার চার বছরের শিশু সন্তান।

আরও পড়ুন: তুরস্কে বিধ্বংসী ভূমিকম্পে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ২৬, জোরকদমে চলছে উদ্ধারকার্য

একনাগাড়ে কেঁদে যাচ্ছিল তার সন্তান, কিছুতেই থামছিল না তাই শ্বাসরোধ করে খুন করেছে বলে সে পুলিশকে জানায়।  বাসুদেব আরও জানিয়েছে স্ত্রী চলে যাওয়ার পর থেকে তার মাথার ঠিক ছিল না। তাই সে এই কাণ্ড ঘটিয়ে ফেলেছে। এমনকী এই খুন করে সে ঠিক করেছিল সন্তানের দেহ তার স্ত্রী যেখানে কাজ করত তার বাইরে ফেলে রেখে আসবে। কিন্তু সেখানে তার স্ত্রীয়ে খোঁজ না পেয়ে মৃতদেহ সে তোয়ালে জড়িয়ে অটোরিকশার মধ্যে রাখে।

বাসুদেবের স্ত্রীয়ের খোঁজ শুরু করেছে পুলিশ।

Related Articles

Back to top button
Close