fbpx
আন্তর্জাতিকবাংলাদেশহেডলাইন

সম্পত্তির জন্য স্কুলশিক্ষক ও তাঁর স্ত্রী হত্যা: ৬ জনের ফাঁসির আদেশ

যুগশঙ্খ প্রতিবেদন, ঢাকা: সম্পত্তির জন্য বাংলাদেশে টঙ্গাইল জেলার রসুলপুরে অবসরপ্রাপ্ত স্কুলের শিক্ষক অনিল কুমার দাস ও তার স্ত্রী কল্পনা রানীকে হত্যা করার অভিযোগে ৬ জনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। রবিবার ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক আবু জাফর মো. কামরুজ্জামান এ রায় ঘোষণা করেন। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলে—স্বপন কুমার দাস, জাহিদুল ইসলাম, ফরহাদ, মনিরুজ্জামান ভুইয়া, মঞ্জুরুল ইসলাম ও শয়ান মিয়া। ট্রাইবুনালের সংশ্লিষ্ট সূত্র এসব তথ্য নিশ্চিত করেছে।

মামলার বিবরণ থেকে জানা যায়, ভিকটিম অনিল কুমারের সৎভাই স্বপন কুমার দাস ও অন্য আসামিদের পরস্পর যোগসাজশে পূর্বপরিকল্পিতভাবে সম্পত্তি আত্মসাতের জন্য কৌশল অবলম্বন করা হয়। স্বপন কুমার দাসের সহযোগী মাদকসেবী মনিরুজ্জামান, ফরহাদ, মঞ্জুরুল, জাহিদ ও শয়ান মিয়া ভিকটিম অনিল কুমারের সম্পত্তি আত্মসাৎ করার জন্য তিনটি স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নেওয়ার পরিকল্পনা করে। এরই ধারাবাহিকতায় ২০১৭ সালের ২৬ জুলাই টাঙ্গাইলের রসুলপুরের বাসায় পূর্বপরিকল্পিতভাবে ভিকটিম অনিল কুমার দাস ও তার স্ত্রী কল্পনা রানীকে হত্যা করে আসামিরা।

আরও পড়ুন: বিশ্বের সফলতম রাষ্ট্রনায়কের স্বীকৃতি নরেন্দ্র মোদির, ৭৫ শতাংশ ভারতবাসীর অভিমত করোনা মোকাবিলায় এগিয়ে মোদি সরকার

হত্যার পর তাদের লাশ বস্তাভর্তি করে বাসার বাথরুমের সেফটিক ট্যাংকের ভেতর ফেলে রাখে। এরপর পুলিশ এসে তাদের লাশ উদ্ধার করে। ওই ঘটনায় নিহত অনিল কুমারের ছেলে নির্মল কুমার দাস বাদী হয়ে টাঙ্গাইল সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

২০১৮ সালের ১৭ সেপ্টম্বর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ভিকটিম অনিল কুমারের সৎভাই স্বপন কুমারসহ ছয় জনকে আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। ২০১৯ সালের ৭ আগস্ট আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়। মামলায় ৩৫ সাক্ষীর মধ্যে বিভিন্ন সময় ২৭ জন সাক্ষ্য দেন।

Related Articles

Back to top button
Close