fbpx
কলকাতাহেডলাইন

‘মুসলিম ধর্মগুরু সুরক্ষিত নন’, আব্বাস সিদ্দিকীর পাশে দিলীপ ঘোষ

রাজ্যপালের দ্বারস্থ পীরজাদা

মোকতার হোসেন মণ্ডল: মুসলিম ধর্মগুরু সুরক্ষিত নন বলে ‘আক্রান্ত’ আব্বাস সিদ্দিকীর পাশে দাঁড়ালেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। উত্তরবঙ্গ সফরের মাঝেই ভাঙড়ে পীরজাদার উপর ‘হামলা’ নিয়ে মন্তব্য করেন দিলীপ ঘোষ।

বিজেপি সভাপতি বলেন, ভাঙড়ে আমার উপর আক্রমণ হয়েছে। ফুরফুরা শরীফের সঙ্গে যুক্ত, সম্মানীয় একজনের প্রতি আক্রমণ হয়ে থাকলে এটা ঠিক নয়,গর্হিত কাজ,সরকারের তদন্ত করে দেখা উচিত। এই ধরনের লোক যদি রাস্তায় বেরুতে না পারেন তাহলে বলবো মুসলমান ধর্মগুরু সুরক্ষিত নন। ভিডিও দেখলাম, তাকে চারিদিকে ঘিরে ইট পাথর মারা হচ্ছে,এটা মোটেই অভিপ্রেত নয়। রাজনৈতিক ভাবে যদি তার সঙ্গে এক মত না হয় তাহলে তাকে মেরে ফেলতে হবে,অত্যাচার করতে হবে এই অনুমতি কেউ দেয়নি।

এদিকে ভাঙড়ে ‘আক্রান্ত’ হওয়ার পর ক্যানিং পূর্বের বিধায়ক শওকত মোল্লার বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে রাজ্য পালের দ্বারস্থ হন পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকী। বৃহস্পতিবার পীরজাদা নওশাদ সিদ্দিকী, সাবির এস গাফ্ফার সহ এক প্রতিনিধি দলকে রাজভবনে পাঠান আব্বাস সিদ্দিকী। এদিন সুন্নাতুল জামায়াতের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে প্রায় তিরিশ মিনিট রাজ্যপাল জগদীপ ধনকরের সঙ্গে বৈঠক হয়। কিন্তু কী বললেন রাজ্যপাল? নওশাদ সিদ্দিকী, সাবির এস গাফ্ফার জানান, রাজ্যপাল বিষয়টি নিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছেন। তিনি ভাঙড়ে পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকীর সঙ্গে যে ব্যবহার হয়েছে সব জানেন। রাজ্যপাল বলেছেন, তার প্রশাসনিক যে এখতিয়ার সেই মতো কাজ করবেন। নৌশাদ সিদ্দিকী আরও জানান, রাজ্যপাল সুন্নাতুল জামাতের ত্রাণের কাজ, ভাঙড়ের ঘটনার পর গণতান্ত্রিক শান্তিপূর্ণ আন্দোলন নিয়ে প্রশংসা করেন। তিনি ফুরফুরাকে ভালোবাসেন। একজন পীরজাদার সঙ্গে যে ব্যবহার একজন বিধায়ক করেছেন তাতে রাজ্যপাল খুশি নন।’

Related Articles

Back to top button
Close