fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

মুসলিমরা রোজা করছে, লকডাউনে বন্দি হিন্দুদের জন্য দিনে খাবার রাধছেন রোজাদাররা

মোকতার হোসেন মন্ডল, কলকাতা: পবিত্র রমজানে মুসলিমরা রোজা রাখছেন, তবু উপবাসে থেকে লকডাউনে বন্দি হিন্দুদের জন্য দিনে খাবার রাধছেন রোজাদাররা। এমনই মিলনের ছবি দেখা গেল উত্তর চব্বিশ পরগনা সহ একাধিক জায়গায়। জানা গেছে, অল ইন্ডিয়া সুন্নাতুল জামাতের পক্ষ থেকে বসিরহাট লোক সভার একাধিক গ্রাম, বাদুরিয়া, মিনাখা বিধানসভার বকচরা আদিবাসী প্রাইমারি স্কুল, রঘুনাথপুর, মালেয়াপুর, দেগঙ্গায় খাবারের লঙ্গরখানা খোলা হয়েছে। বেশ কিছু জায়গায় মাদ্রাসাগুলিতে খেতে দেয়া হচ্ছে।

অল ইন্ডিয়া সুন্নাতুল জামাতের সম্পাদক মুফতি আব্দুল মতিন জানান, প্রতিদিন প্রায় চার হাজারের অধিক মানুষ খাচ্ছে।
অনেকে অবাক হবেন, রমজান মাসে মুধ্যাহ্ন ভোজ! আসলে এই সময় মুসলিমরা রোজা করছেন কিন্তু লকডাউনে বিপদে থাকা হিন্দু ভাইদের জন্য দিনেও খাবার রান্না করছেন। রোজা রেখে মুসলিমরা এইভাবে হিন্দু ভাইদের জন্য রান্না করছেন। মানুষ খাচ্ছেন এবং বাড়ির জন্য নিয়ে যাচ্ছেন। আসলে এটাই ভারতীয় সংস্কৃতি।’

আরও পড়ুন: ইরান চাপের মুখে হতাশ হয়ে পড়েছে: ব্রায়ান হুক, পাল্টা মস্কো-তেহেরানের

মুফতি আব্দুল মতিন আরও জানান, কোভিড- ১৯ প্রতিরোধ করতে লকডাউনের শিকার গরিব মানুষদের প্রতিদিন দু মুঠো ডাল-ভাত খাওচ্ছে অল ইণ্ডিয়া সুন্নাত অল জামায়াতের ক্ষুধা প্রকল্পের স্বেচ্ছাসেবীরা। এই ভাবে লঙ্গরখানা চলতে চলতে রমজান মাস এসে যায়। মুসলিম স্বেচ্ছাসেবীরা রোজা রেখেও লঙ্গরখানার শিশু ও হিন্দু অতিথিদের নিয়মিত ভাবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই প্রতিদিন দুপুরে খাওয়াচ্ছেন। আর রোজাদার মুসলিমদের জন্য সন্ধ্যার পরে ব্যবস্থা করছেন। হিন্দুরা মুসলিমদের এই পরিষেবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছেন। একদিকে হিন্দু মা যখন মুসলিম মেয়েকে সেহেরী করাচ্ছেন, অন্যদিকে মুসলিমরা রোজা রেখে দুপুরে হিন্দুদের খাওয়াচ্ছেন। আসলে সাম্প্রদায়িক শক্তি বিভেদের রাজনীতি করে ক্ষমতায় টিকে থাকার চেষ্টা করলেও সম্প্রীতি আর ঐক্যের ভারত গড়ার চেষ্টা করছেন মানুষ।

Related Articles

Back to top button
Close