fbpx
একনজরে আজকের যুগশঙ্খদেশ

মাদক কাণ্ডে শাহরুখ খানের বাড়িতে এনসিবি হানা!

নিজস্ব প্রতিনিধি:  মাদক-কাণ্ডে শাহরুখ খানের পুত্র আরিয়ান খান জেল হেফাজতে রয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকালে আর্থার জেলে ছেলের সঙ্গে দেখা করতে হঠাৎই হাজির হন বলিউড বাদশা। আর তার কয়েক ঘণ্টা পরেই শাহরুখ খানের বাড়িতে হানা দিল নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো বা এনসিবি। মাদক-কাণ্ডের  জেরে এই প্রথম শাহরুখের বাংলো ‘মন্নত’-এ পা দিল এনসিবি। সেখানে এনসিবি আধিকারিকরা দীর্ঘক্ষণ তল্লাশি চালান বলে খবর।

এদিন সকালে জিন্স, টি-শার্ট পরে জেলে পৌঁছন শাহরুখ। তাঁর চোখে ছিল সানগ্লাস। ফটোগ্রাফারদের দিকে একবারও না তাকিয়ে ভাবলেশহীন মুখে সোজা জেলের অন্দরে ঢুকে যান তিনি। কিছুক্ষণ থেকে জেল থেকে বেরিয়ে যান কিং খান। আর তার কয়েক ঘন্টা পরেই দেশজুড়ে আছড়ে পড়ল বিগ ব্রেকিং নিউজ। শাহরুখের বাড়িতে পৌঁছে গেল এনসিবি। ঘটনার জেরে বলিউডে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

দীর্ঘদিন ধরেই শোনা যাচ্ছিল  বলিউডের অভিনেতা- অভিনেত্রীদের একাংশ মাদক সেবন করেন। অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের রহস্য-মৃত্যুর পর বিষয়টি নিয়ে তৎপরতা বাড়ায় এনসিবি। এরপরই সামনে আসে আরিয়ান খানের ঘটনা। তবে বৃহস্পতিবার শুধু শাহরুখ খানের বাড়িতে নয়, এদিন অভিনেতা চাঙ্কি পাণ্ডের কন্যা অনন্যা পাণ্ডের বান্দ্রার বাড়িতেও পৌঁছন এনসিবি কর্তারা। সেখানেও চলে তল্লাশি। সেই সঙ্গে অনন্যাকে তাদের দফতরে হাজিরার জন্য সমন পাঠায় এনসিবি। এর আগে বুধবার আদালতে আরিয়ান ও এক উঠতি বলিউড অভিনেত্রীর হোয়াটস অ্যাপ চ্যাট জমা দেয় এনসিবি। মাদক নিয়ে অভিনেত্রীর সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ চ্যাট করেছেন আরিয়ান, এই তথ্যই হাতে এসেছিল এনিসিবি কর্তাদের। যদিও চ্যাটের বিষয়বস্তু নিয়ে কিছু বলেননি কর্তারা। কিন্তু একই দিনে শাহরুখের বাংলোয় এনসিবির হানা এবং অনন্যা পাণ্ডেকে সমন পাঠানোর মধ্যে  কোনও যোগসূত্র রয়েছে কিনা, সেটা নিয়ে নতুন করে চর্চা শুরু হয়েছে বলিউডে। শাহরুখ-পুত্রর সঙ্গে অনন্যা পান্ডের এ ব্যাপারে যোগাযোগ আছে কিনা সেটাই কি খতিয়ে  দেখতে চাইছে এনসিবি? এই প্রশ্ন উঠছে।

এদিকে আরিয়ানের জামিন মামলার শুনানি বৃহস্পতিবার হয়নি বম্বে হাইকোর্টে। বিচারপতি জানিয়েছেন আগামী মঙ্গলবার তিনি জামিন মামলাটি শুনবেন। অর্থাৎ সেদিন পর্যন্ত জেলেই থাকতে হবে আরিয়ানকে। গোটা বিষয়টি নিয়ে অত্যন্ত উদ্বিগ্ন শাহরুখ। এই পরিস্থিতিতে শাহরুখের বাড়িতে এনসিবি’র হানা দেওয়ার ঘটনা বেশ তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। আগামী দিনে মাদক- কাণ্ড কোনও নতুন মোড় নেয় কিনা, সেটাই দেখার।

Related Articles

Back to top button
Close