fbpx
আন্তর্জাতিকহেডলাইন

গদি বাঁচাতে মরিয়া, নেপালে ‘জরুরি অবস্থা’ ঘোষণা করতে পারেন ওলি!

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: ভারতের সঙ্গে সীমান্ত নিয়ে বিবাদে জড়িয়ে দলের অন্দরেই কোণঠাসা হয়ে পড়েছেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী ওলি। গদি বাঁচাতে এখন মরিয়া হয়ে উঠেছেন তিনি। সূত্রের খবর দেশে স্বাস্থ্য জরুরি অবস্থা জারি করতে চাইছেন ওলি। এই নিয়ে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে বৈঠকও করেছেন তিনি। কিন্তু ওলির আসল উদ্দেশ্য ধরে ফেলেছেন রাষ্ট্রপতি। তাই প্রধানমন্ত্রী স্বাস্থ্য জরুরি অবস্থা জারির প্রস্তাব নাকোচ করে দিয়েছেন।

নেপালে ক্রমশ বাড়ছে রাজনৈতিক ডামাডোল। প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা ওলির গদি বাঁচাতে রীতিমতো গলদঘর্ম হতে হচ্ছে চিনকে। পরিস্থিতি এমন জায়গায় পৌঁছেছে যে ইস্তফা দিতে হলে শাসক দল নেপাল কমিউনিস্ট পার্টিকে (NCP) দু’টুকরো করে ফেলার হুঁশিয়ারিও দিয়ে ফেলেছেন ওলি। এই অবস্থায় নিজের কুরসি বাঁচানোর জন্য দেশে ‘স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে জরুরি অবস্থা’ জারি করার কথা ভাবছেন তিনি। দেশে ‘করোনা মহামারীর মোকাবিলায়’এই ব্যবস্থা নিত চান ওলি।

সূত্রের খবর, ইতিমধ্যে দেশে ‘স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে জরুরি অবস্থা’ জারি করার এই পরিকল্পনা নিয়ে রাষ্ট্রপতি বিদ্যাদেবী ভাণ্ডারির সঙ্গে দেখা করেছেন ওলি। যদিও এই পরিকল্পনায় এখনও সম্মতি দেননি রাষ্ট্রপতি। পরিবর্তে বলেছেন, আলোচনার মাধ্যমে তাঁর সঙ্গে অন্যদের দ্বন্দ্ব মিটিয়ে নিতে। রাজনীতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, একতরফা বিদেশনীতির জন্য দলের ভিতরেই চরম বিরোধিতার মুখে পড়েছেন ওলি। এককালের কমরেড তথা ‘নেপাল কমিউনিস্ট পার্টি’র চেয়ারম্যান পুষ্পকমল দাহাল আজ ওলির সবথেকে বড় বিরোধী। ফলে দল এখন দু’ভাগ হয়ে যাওয়ার উপক্রম। সে জন্যই এখন স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে জরুরি অবস্থা জারি করতে চান ওলি। তাহলে আপাতত কিছুদিনের জন্য নিজের গদি বাঁচাতে পারবেন ওলি।

আরও পড়ুন: বাড়ছে বিপদ, ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৮ লক্ষ ছুঁইছুঁই

ওলির ছক আঁচ করেই সেই প্রস্তাব নাকোচ করে দেন রাষ্ট্রপতি বিডি ভান্ডারি। তিনি উল্টে ওলিকে বলেছেন স্বাস্থ্য জরুরি অবস্থা জারি না করে নিজের দলের লোকেদের সঙ্গে বিবাদ মেটানোয় যেন উদ্যোগী হন তিনি। এবং নেপালের সেনা স্বাস্থ্য জরুরি অবস্থা জারি করার জন্য জওয়ানদের মোতায়েন করতে চায় না বলে জানিয়েছেন। পদত্যাগে নারাজ ওলি দলের শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে বিরোধে জড়ালেও পদত্যাগ করবেন না বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা ওলি। এই নিয়ে ফের নেপাল কমিউনিস্ট পার্টির শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বসতে চলেছেন তিনি। তুমুল রাজনৈতিক অস্থিরতা তৈরি হয়েছে নেপালে।

Related Articles

Back to top button
Close