fbpx
দেশহেডলাইন

নেতাজির মূর্তি আগামী প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করবে’, ‘হলোগ্রাম’ মূর্তির উদ্বোধন করে শ্রদ্ধা নিবেদন প্রধানমন্ত্রীর

যুগশঙ্খ, ওয়েবডেস্কঃ নেতাজির ১২৫ তম জন্ম জয়ন্তীতে হলোগ্রাম মূর্তির উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আজ ইন্ডিয়া গেটে নেতাজী ডিজিটাল মূর্তি স্থাপন করা হয়েছে। খুব শীঘ্রই এই হলোগ্রাম মূর্তির জায়গায় গ্রানাইটের বিশাল মূর্তি বসানো হবে। যতদিন না সেই মূর্তি গড়ার কাজ শেষ হয়,  ততদিন নেতাজির এই হলোগ্রাম মূর্তি বসানো থাকবে। কিছুদিন আগেই ইন্ডিয়া গেটে এই মূর্তি বসানোর কথা ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী। সেই মতো আজ ইন্ডিয়া গেটে বসল এই হলোগ্রাম মূর্তি।

উদ্বোধনে প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেন,  ‘আজকে আমরা ইন্ডিয়া গেটে নেতাজি সুভাষচন্দ্রকে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেছি। নেতাজি সুভাষ ও স্বতন্ত্র ভারতে বিশ্বাস জুগিয়েছিলেন। সাহসিকতা ও দৃঢ়তার প্রতীক। ইংরেজদের তিনি বলেছিলেন ‘আমি স্বাধীনতার ভিক্ষা নেব না, আমি স্বাধীনতা আদায় করেই ছাড়ব।’  মোদী বলেন, ‘যে ব্যক্তি ভারতে মাটিতে প্রথম স্বাধীন সরকার স্থাপন করেছিলেন, আজ ইন্ডিয়া গেটে তার ডিজিটাল স্ট্যাচু স্থাপিত হয়েছে। খুব শীঘ্রই এই হলোগ্রাম মূর্তির জায়গায় গ্রানাইটের বিশাল মূর্তি বসানো হবে। স্বাধীনতার মহান নায়ককে দেশের শ্রদ্ধাঞ্জলি। নেতাজি সম্পর্কিত ফাইল উন্মোচন করতে পেরেছে সরকার এটা আমাদের সৌভাগ্যের। নেতাজি ব্রিটিশ শক্তির কাছে কোনওদিন মাথা নত করেননি। এই যে নেতাজির মূর্তি তা গণতান্ত্রির মূল্যবোধকে উৎসাহিত করবে, পাশাপাশি আগামী প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করবে।‘

মোদী আরও  বলেন, ‘বিশ্বের কোনও শক্তি নেই ভারতকে নাড়াতে পারে। এমনটাই বলেছিলেন নেতাজি। মোদী বলেন, ২০৪৭ সালের আগে নতুন ভারত তৈরির লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছে তাঁর সরকার। স্বাধীনতার ১০০ বছরে এটাই অঙ্গীকার হবে। 

উল্লেখ্য, ১৮৯৭ সালের ২৩ জানুয়ারি ওড়িশার কটকে জন্ম নেন সুভাষ চন্দ্র বসু। আর সেই ওড়িশারই অদ্বৈত গড়নায়ক, গড়ে তুলবেন গ্র্যানাইটের এই বিশালাকার মূর্তি। বিষয়টি নিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে অদ্বৈত গড়নায়ক জানিয়েছেন, ‘আমি খুশি । আমার কাছে এটা সম্মানের বিষয় যে এই দায়িত্ব আমাকে দিয়েছেন নরেন্দ্র মোদী।’  নেতাজির মূর্তি তৈরির জন্য কালো গ্র্যানাইট আসবে তেলাঙ্গানা থেকে। মূর্তি দেখা যাবে সোজা রাইসিনা হিলস থেকে।

Related Articles

Back to top button
Close