fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

ফের রাজ্যে রেকর্ড, নতুন করোনা আক্রান্ত ৬২৪, সুস্থ ৫২৬, মৃত ১৪

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা, ২৯ জুন: ফের সংক্রমণের সমস্ত রেকর্ড ছাপিয়ে একদিনে ৬২৪ সংক্রমণের রেকর্ড গড়ল রাজ্য। তবে ২৪ ঘন্টায় সুস্থ হয়েছেন ৫২৬ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ১৪ জনের। সোমবার প্রকাশিত বুলেটিন এমন তথ্যই প্রকাশ্যে এসেছে। ফলে করোনা সংক্রমণ বাড়লেও রাজ্যে বিপুল পরিমাণ মানুষ সুস্থও হয়েছেন। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য, এই নিয়ে দ্বিতীয়বার কলকাতাতেই সুস্থ হয়েছেন ৩৩৯ জন।

প্রসঙ্গত, বিগত বেশ তিন দিন ধরেই রাজ্যে ৫০০-এর বেশি সংক্রমণের হদিশ আসছিল। আনলক ফেজে রাজ্যে যে ফের সংক্রমণ বাড়তে শুরু করেছে, তা বোঝা যাচ্ছিল।মাত্র তিন দিনেই এবার সংক্রমণ ৬০০-এর গণ্ডিও পেরিয়ে গেল।

বুলেটিন অনুযায়ী, ফের ২৪ ঘন্টায় ৬২৪ জন করোনা পজিটিভে রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১৭৯০৭ জনে। আরও ১৪ জনের মৃত্যু হওয়ায় রাজ্যে সরকারি হিসেবে মোট করোনায় মৃত্যু ৬৫৩ জনের। এদিকে আরও ৫২৬ জন সুস্থের হিসেব ধরলে মোট সুস্থ হলেন ১১৭১৯ জন।

তবে সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার সর্বোচ্চ থাকলেও সুস্থতাতেও এদিন চমক দেখিয়েছে কলকাতা।
এদিন কলকাতায় সুস্থ হয়েছেন ৩৩৯ জন।
এদিন অন্যান্য জেলার সঙ্গে উত্তর ২৪ পরগনায় ৩৯ জন এবং হাওড়ায় ৩৯ জন সুস্থ হয়েছেন। তবে সংক্রমণ বাড়লেও সুস্থতার হার ফের বেড়ে দাঁড়াল ৬৫.৪৪ শতাংশে। এই মুহূর্তে রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন ৫৫৩৫ জন। তার মধ্যে এদিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা বেড়েছে মাত্র ৮৪ জনের।

বুলেটিনে আরও জানানো হয়েছে, এদিন পর্যন্ত রাজ্যের ৫১ টি ল্যাবে মোট করোনা টেস্টের সংখ্যা ৪৭৮৪১৯ জনের। তার মধ্যে ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে করোনা পরীক্ষা হয়েছে ৯৫১৩ জনের। টেস্ট কম হওয়া সত্ত্বেও সংক্রমণ বাড়া যথেষ্ট উদ্বেগজনক বলে মত স্বাস্থ্য আধিকারিকদের। রাজ্যের ৭৮ টি করোনা হাসপাতাল, ২৫ টি সরকারি এবং ৫৩ টি বেসরকারি হাসপাতালে মোট ১০৪৭৪ টি বেড আছে, আইসিইউ পরিষেবা রয়েছে ৯৪৮ জনের। ভেন্টিলেটর রয়েছে ৩৯৫ টি। তার ২১.৯১ শতাংশ রোগী ভর্তি আছেন।

সরকারি ৫৮২ টি কোয়ারেন্টাইনে এখন রয়েছেন ৬৯৩১ জন। ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ৯৫৯৪৪ জনকে। হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ৭১৪৬৬ জন। ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ২৩৯১৯২ জনকে। শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন ফেরত পরিযায়ী শ্রমিকদের তথ্যে জানানো হয়েছে, ৪০৬৮ টি কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে ২১৪৬৪ জন শ্রমিককে কোয়ারেন্টাইন করে রাখা হয়েছে। করোনা পরীক্ষা করে সুস্থ দেখে ২৪১৬৮৭ জন শ্রমিককে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। রাজ্যে সেফ হোম ও তার বেড সংখ্যা এবং সেখানে রোগীদের সংখ্যা উল্লেখ করে বলা হয়েছে, রাজ্যের ১০৬ টি সেফ হোমে ৬৯০৮ টি বেড রয়েছে এবং তাতে ৪২১ জন রোগী রয়েছেন।

এছাড়া এদিনের বুলেটিনে জেলাওয়াড়ি তথ্যে জানানো হয়েছে, কলকাতায় এদিন ১৮০ আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ায় মোট সংক্রমণ ৫৭৫৩ জনের। এদিন কলকাতায় আরও ৬ জনের মৃত্যু হওয়ায় কলকাতাতে মোট মৃত্যু ৩৭২ জনের। এছাড়া এদিন হাওড়ায় ৩ জন, উত্তর ২৪ পরগনায় ২ জন এবং হুগলি, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পশ্চিম মেদিনীপুরে ১ জন করে করোনা রোগীর মৃত্যু হওয়ায় আরও ৮ জন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এদিন অন্যান্য জেলার সঙ্গে উত্তর ২৪ পরগনায় ১৩২ জন, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ৭৬ জন, হাওড়ায় ৯৫ জনের সংক্রমণ উল্লেখযোগ্য হারে সংক্রমণ বৃদ্ধি পেয়েছে। এদিনও উত্তরবঙ্গের আলিপুরদুয়ার, কালিম্পং, দক্ষিণ দিনাজপুর এবং দক্ষিণবঙ্গের বীরভূম, পুরুলিয়া ও ঝাড়গ্রাম ছাড়া সংক্রমণ বেড়েছে রাজ্যের বাকি সমস্ত জেলাতেই।

মোট আক্রান্ত ১৭৯০৭ জন
মোট মৃত ৬৫৩ জন
মোট সুস্থ ১১৭১৯ জন

Related Articles

Back to top button
Close