fbpx
গুরুত্বপূর্ণলাইফস্টাইলহেডলাইন

শিশুদের মধ্যে করোনা রোগের নতুন লক্ষণ

ডা: প্রবীর ভৌমিক: সারা পৃথিবীতে করোনা রোগ মহামারী রূপ নিয়েছে। বর্তমানে ভারতবর্ষের স্থান তৃতীয়। পশ্চিমবাংলাতেও আমরা সবাই প্রতিদিন হারাচ্ছি আমাদের প্রিয়জনকে। আমরা সবাই আতঙ্কিত। কবে শেষ হবে এর আক্রমণ এবং পৃথিবী আবার আগের মতো হবে এটাই আমাদেরকে এখন ভাবিয়ে তুলেছে, মানুষজন জীবন ও জীবিকার টানাপোড়েনে সেরে প্রাণ খুলে আগের মতো বাঁচবে।

এই রোগে আক্রান্তের সংখ্যা এবং মৃত্যুহার বেশি যাদের বয়স ৬০-এর উপর। এবং সুগার, প্রেসার ও হার্ট ডিজিস আছে যাদের প্রতিরোধ ক্ষমতা কম। এমনকী শিশুরাও আক্রান্ত হতে পারে। কিন্তু পরিসংখ্যান অনুযায়ী অনেক কম। কারণ হিসেবে বলা হচ্ছে

1) m m r vaccination

2) অন্যান্য ভাইরাস দ্বারা শিশুরা প্রায় আক্রান্ত হয়ে goss umunity প্রদান করা

3) BCG vaccination

4) জিনগত পার্থক্য

5) corona virus এর receptor কম

আরও পড়ুন:দীর্ঘ হচ্ছে তালিকা…৮ লাখের গন্ডি পার করল আক্রান্তের সংখ্যা, উদ্বেগে মহারাষ্ট্র, স্বস্তিতে দিল্লি

কিন্তু যেটা উল্লেখযোগ্য বিষয় হল রোগিদের যেমন সর্দি-কাশি-জ্বর এবং fricumonia এই রোগের প্রধান লক্ষণ কিন্তু শিশুদের মধ্যে এই রোগ অনেক সময় অন্যভাবে উপস্থিত হচ্ছে। শিশুরা কিন্তু খুব ভালোবাহক হিসাবে কাজ করে। অজান্তেই বাড়ির বড়দের ক্ষতি করে দিচ্ছে। কিন্তু যারা আক্রান্ত হচ্ছে তাদের মধ্যে একটা বড় অংশের মধ্যে পেটে ব্যথা, পাতলা পায়খানা ও জ্বর নিয়ে উপস্থিত হচ্ছে।

এছাড়া সারা পৃথিবী জুড়ে দেখা যাচ্ছে এক নতুন রোগের নাম মাল্টি সিস্টেম ইনফ্লেমেটারি সিনড্রোম বা পেডিয়াট্রিক মাল্টি সিস্টেম ইনফ্লেমেটরি সিনড্রোম। একসঙ্গে শারীরিক অঙ্গে শিরা ও ধমনীতে প্রবাহ। অনেক সময় হৃদপিন্ডের শিরা ও মাংসপেশি আক্রান্ত হচ্ছে।

হঠাৎ মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে। খুব জ্বর, লাল চোখ ও ঠোঁট, rash, গায়ে ব্যথা, গাঁটে ব্যথা এবং হাত পা ফুলে যাওয়া অনেক সময় এটাকে কাওয়াসাকি রোগ বলে ভুল হতে পারে। বলা যেতে পারে আনকমন কাওয়াসাকি রোগের লক্ষণ প্রথাগত লক্ষণ নয়।
ইউএসএ, ইউকে, ইটালিতে এই রোগে বহু শিশু আক্রান্ত হয়েছে প্রতিদিন। তাই WHO ও CDC (usa) এর লক্ষণগুলো এবং কারণগুলো নিয়ে guide line তৈরি করেছে।

উল্লেখ করা যায় কোলাঘাট শিশু চিকিৎসা শুশ্রূষা কেন্দ্রে এরকম লক্ষণ নিয়ে গত ১৫ দিনে ৫ জন শিশু আক্রান্ত হয়। তারা অন্য রাজ্য থেকে বেশ কিছুদিন আগে এসেছে। বা সংস্পর্শে আসার হিস্ট্রি আছে।

আরও পড়ুন:গির্জার দখলদারি নিয়ে রণক্ষেত্র জোহানেসবার্গ, নিহত ৫, প্রাণে বাঁচলেন পূণ্যার্থীরা

পৃথিবীর অন্যান্য দেশের মতো এদেরও Corona Test Report Inconclusive reaction এসেছে। কারণ এটা একটা antiqeu ও antibody reaction (t g g) test। আমাদের রাজ্যে করার জন্য সরকার এখনও অনুমতি দেয়নি।

যেহেতু এই করোনা আবহে এইসব রোগির দেহে লক্ষ্য করা যাচ্ছে বিজ্ঞানীরা ভাবছেন করোনা সঙ্গে যোগাযোগ আছে। WHO তা মেনে নিয়েছে। আমাদের দেশে এটা নিয়ে কোনও সংঘটিত রিপোর্ট দেওয়া হয়ে ওঠেনি বিভিন্ন কারণে। কিন্তু আমাদের সবাইকে এবং সমস্ত ডাক্তারবাবুদের সতর্ক থাকতে হবে। শুধু দামি দামি অ্যান্টিবায়োটিক কোনও কাজ করবে না।
ঠিক সময়ে না রোগ ধরতে পারলে জীবনহানির আশঙ্কা। সচেতনতার লক্ষ্যে হাত ধোয়া, মাস্ক পরা ,সোশ্যাল ডিসটেন্স মেনে চলা, নিয়মকানুন মেনে একযোগে এর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। এটা করতে পারলেই আমাদের জয় আসবে একদিন না একদিন।

(মতামত নিজস্ব)

Related Articles

Back to top button
Close