fbpx
আন্তর্জাতিকগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

করোনার কারণে পিছল নিউজিল্যান্ডের জাতীয় নির্বাচন

ওয়েলিংটন, (সংবাদ সংস্থা): মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে প্রায় এক মাস পিছিয়ে গেছে নিউজিল্যান্ডের জাতীয় নির্বাচন। প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আর্ডার্ন সোমবার এক ঘোষণার মাধ্যমে নির্বাচন পিছানোর কথা জানিয়েছেন। সূত্রের খবর, আগামী ১৯ সেপ্টেম্বর জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও তা হবে ১৭ অক্টোবর।
উল্লেখ্য, চলতি সপ্তাহের শুরুতেই নিউজিল্যান্ডে পুনরায় লকডাউন জারি হয়। এরপর জেসিন্ডা আর্ডার্ন বলেন, ‘নির্বাচন পিছানোর এই সিদ্ধান্তের কারণে নির্বাচনে অংশ নেওয়া সব দল আগামী নয় সপ্তাহ নির্বাচনী প্রচারণার জন্য সময় পেল। একই সঙ্গে নির্বাচন কমিশনও নির্বাচনের সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার জন্য যথেষ্ট সময় হাতে পেল।’ যদিও, এর আগে নির্বাচন পিছিয়ে দেয়ার দাবি জানান বিরোধী দলীয় নেতা জুডিথ কলিন্স। তিনি বলেন, ‘বর্তমান পরিস্থিতিতে একটি সুষ্ঠু এবং অবাধ নির্বাচন করা সম্ভব নয়।’
প্রসঙ্গত, গত ফেব্রুয়ারি মাসে নিউজিল্যান্ডে প্রথম করোনা শনাক্ত হওয়ার পর থেকেই কড়াকড়ি আরোপ করা হয়। ফলে করোনা পরিস্থিতি অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়। একই সঙ্গে টানা টানা তিন মাস কোনো সংক্রমণ ধরা না পড়ায় রীতিমত সবাইকে অবাক করে দে জেসিন্ডা আর্ডার্নের দেশ। করোনাভাইরাস মোকাবিলায় নিউজিল্যান্ডের এই সফলতা বিশ্বজুড়েই ব্যাপক প্রশংসিত হয়। সারাবিশ্বেই করোনার তাণ্ডব চললেও প্রশান্ত মহাসাগরীয় ৫০ লক্ষ জনগোষ্ঠীর এই দেশটিতে সব ধরনের বিধি-নিষেধ তুলে নেয়া হয় তিন মাস আগে। কিন্তু টানা ১০২ দিন সংক্রমণমুক্ত থাকার পর নতুন করে নিউজিল্যান্ডে সংক্রমণ দেখা দেওয়ায় আবারও নিষেধাজ্ঞা জারি করতে হয়েছে।
ওয়ার্ল্ডোমিটারের পরিসংখ্যান বলছে, নিউজিল্যান্ডে এখন পর্যন্ত ১ হাজার ৬৩১ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এর মধ্যে ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে। ইতিমধ্যেই সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১ হাজার ৫৩১ জন। অর্থাৎ আক্রান্তদের মধ্যে অধিকাংশই এখন সুস্থ। তবে বর্তমানে করোনার অ্যাক্টিভ কেস ৭৮টি। এরমধ্যে, পাঁচজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

Related Articles

Back to top button
Close