fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

পরিবারের বকুনি খেয়ে আত্মঘাতী নবম শ্রেণীর ছাত্রী

শ‍্যাম বিশ্বাস, উওর ২৪ পরগনা: পরিবারের বকুনি খেয়ে আত্মঘাতী নবম শ্রেণীর ছাত্রী। বসিরহাট মহাকুমার হাসনাবাদ থানার আশারিয়া গ্রামের ঘটনা। বছর ১৫ লিজা পারভীন কুমোর পুকুর হাই স্কুলের নবম শ্রেণীর ছাত্রী। গতকাল মঙ্গলবার রাত্রিবেলা বাবা সাহেব আলী গাজী ও মা খাদিজা বিবির সঙ্গে পারিবারিক অশান্তি লেগে থাকত‌। মা-বাবার মধ্যে প্রায় গন্ডগোল ঝামেলা হতো। নিজের বাড়ি ছেড়ে বাপের বাড়িতে থাকতো খাদিজা বিবি। এই অশান্তির জেরে তাদের মেয়ে লিজা মানসিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত ছিল দীর্ঘদিন ধরেই। মঙ্গলবার রাত্রিবেলা তাদের মেয়ের সামনে মোবাইল ফোনে কথোপকথনে মা-বাবার মধ্যে গণ্ডগোল বেঁধে যায়। মেয়ে লিজা প্রতিবাদ করলে,তার বাবা অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ, এমনকি তার গায়ে হাত তোলা হয় বলে অভিযোগ।

আরও পড়ুন: করোনা আতঙ্কে ফাঁকা হাসপাতালের আউটডোর, এক্স-রে, এমআরআই, সিটি স্ক্যান ইউনিট গুলিতেও রোগী কম

কিন্তু তার মায়ের অভিযোগ আমার মেয়ের সৎ মা ও বাবা মিলে খুন করে ঝুলিয়ে দিয়েছে, এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে আসছে। গতকাল গভীর রাত্রে লিজা পারভীন নিজের ঘরে গিয়ে গলায় ওড়না জড়িয়ে আত্মঘাতী হয়। সেই সময় বাবা সহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা রাত্রের ইফতার পার্টিতে ছিল।সেই সুযোগে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মঘাতী হয় এমনটাই অভিযোগ পরিবারের। এই ঘটনার জেরে গ্রামে শোকের ছায়া নেমে পরেছে। খবর পেয়ে আজ সকালে হাসনাবাদ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বসিরহাট জেলা হাসপাতালে পাঠিয়েছে। শুধুই কি বাবার বকুনিতে আত্মঘাতী ? না অন্য কোনো কারণ আছে ? তার পুরো বিষয়টি তদন্ত করে দেখছে হাসনাবাদ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে হাসিনার পুলিশ আশপাশে বাড়িতে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে সত্যি ঘটনাটা কি।

Related Articles

Back to top button
Close