fbpx
অন্যান্যপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

কমেছে দূষণ, বদলেছে জলবায়ু, পরিবেশে আক-ঘাসফড়িংয়ের প্রাদুর্ভাবে পঙ্গপালের আতঙ্ক

জয়দেব লাহা, দুর্গাপুর: লকডাউনের জের, বাতাসে দূষণ অনেকটাই কমেছে। বদলে গেছে আবহাওয়া জলবায়ু। ঋতু বৈচিত্র সঠিক দশায় ফিরে এসেছে। আর তার ফলে ফিরে এসেছে বহু বিলুপ্তপ্রায় জীব বৈচিত্র। এমনই এক পতঙ্গ ফিরে আসায় পঙ্গপালের আতঙ্ক ছড়িয়েছে রাজ্যজুড়ে। গত কয়েকদিন ধরে শিল্পাঞ্চলের পথেঘাটে আকন্দ গাছে নজর পড়ছে পঙ্গপালের মতই দেখতে ওই পতঙ্গ।

কাঁকসা ও পান্ডবেশ্বরের মহাল এলাকায় আকন্দ গাছের পোকা খাওয়া পাতা দেখে চমকে ওঠে এলাকাবাসী। গুরুত্ব দিয়ে দেখতেই ফড়িংয়ের মত ওই পতঙ্গকে নজরে পড়ে। শরীরে রঙীন ছাপ। সামনে লম্বা শুড়। সপাটে খাচ্ছে আকন্দ গাছের পাতা। সম্প্রতি পঙ্গপালের দল আসার খবর চাউর হতেই আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে ওই পোকা দেখে।

প্রশ্ন, কী ওই পতঙ্গ? বিজ্ঞানীমহল সূত্রে জানা গেছে, পতঙ্গটি পোইকিলোসারস পিকটস্। পেন্টেড গ্রাস হোপারস বলা হয়। আবার আবার আকন্দ গাছে থাকে বলে আক-গ্রাস হোপার বলা হয়ে থাকে। পিরগোমরফিডে প্রজাতি। মলুত নদী উপতক্যায় আকন্দ গাছে দেখা যায়। এখন তাদের প্রজনন সময়কাল। আকন্দ গাছের আঠার রস পেলে তাদের ডিম নিসিক্ত হয়। কোলকাতার জুওলজিক্যাল সার্ভে অব্ ইন্ডিয়ার প্রাক্তন অ্যাসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টর তথা অবসরপ্রাপ্ত বিজ্ঞানী ডঃ আশীষ হাজরা জানান,” এই পতঙ্গটি মুলত আকন্দ গাছে বেশী থাকে। এবং আকন্দ পাতা খায়। এছাড়াও কচি শাল পাতা খায়। শাক-সব্জি, শস্য খায় না। তাই চাষীদের আতঙ্কের কারণ নেই। পঙ্গপাল থেকে সম্পুর্ন আলাদা।”

তিনি বলেন,” পঙ্গপাল অ্যাক্রিডিড প্রজাতির। মুখটা চ্যাপ্টা। পেন্টেড গ্রাস হোপারের মুখটা সুঁচালো। দুটো পতঙ্গই আলাদা প্রজাতির।”

Related Articles

Back to top button
Close