fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

পূর্ব বর্ধমান জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সংগঠনে রদবদল ঘটলেও জেলা সভাপতির পদে স্বপন দেবনাথের উপরেই আস্থা রাখলেন নেত্রী

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান: আসন্ন বিধানসভা ভেটকে পাখির চোখ করে তৃণমূল কংগ্রেসের সংগঠনে বড় রকমের রদলবদল ঘটালেন দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার রাজ্য স্তরের পাশাপাশী জেলা স্তরেও সাংগাঠনিক রদবদল ঘটানো হয়েছে ।

 

তৃণমূলের পূর্ব বর্ধমান জেলা সাংগাঠনেও ঘটেছে রদবদল ।কার্যহীন করেদেওয়া হয়েছে দীর্ঘ ১২ বছরের থাকা লম্বা চওড়া জেলা কমিটি। পরিবর্তে পাঁচজনের একটি জেলা কমিটি গঠন করে দিয়েছে দল ।সেই কমিটিতে ‘পুনর্বাসন’ পেয়েছেন বর্ধমান-দুর্গাপুরের প্রাক্তন সাংসদ মমতাজ সঙ্ঘমিতা। তাঁকে এই কমিটির চেয়ারপার্সন করা হয়েছে । জেলা সভাপতি পদে পরিবর্তন করা না হলেও ‘কো-অর্ডিনেটর’ করা হয়েছে তিন জনকে ।
এই কো – অর্ডিনেটরদের কি কাজ হবে তাও দলনেত্রী এদিন বাতলে দিয়েছেন ।

জেলা কো-অর্ডিনেটর দেবু টুডুকে রাজ্যস্তরের সমন্বয় কমিটির সদস্য করা হয়েছে। জেলা যুব সভাপতি পদে তুলে আনা হয়েছে বর্ধমান শহর নিবাসী রাসবিহারী হালদারকে।রাজ্যের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ কেই জেলা সভাপতি রাখা হয়েছে । কো-অর্ডিনেটর করা হয়েছে প্রাক্তন বিধায়ক ও জেলা পরিষদের মেন্টর উজ্জ্বল প্রামাণিককে। এছাড়াও ভাতারের বিধায়ক সুভাষ মণ্ডল ও গলসির বিধায়ক অলোক মাজিকে কো -অর্ডিনেটর করাহয়েছে ।তবে এই রদবদল নিয়ে প্রকাশ্যে মুখ না খুললেও
জেলার অনেক নেতার বক্তব্যে অসন্তোষ প্রকাশ পেয়েছে ।

তৃণমূল সূত্রে জানা গিয়েছে, উজ্জ্বলবাবুকে এর আগে রাজ্যের তফসিলি ও জনজাতিদের নিয়ে গঠিত কমিটির সভাপতি করা হয়েছিল। এ দিন তাঁকে জেলার বড় অংশে ‘নজরদারি’ করতে বলা হয়েছে। তাঁর এলাকার মধ্যে রয়েছে, বর্ধমান উত্তর, বর্ধমান দক্ষিণ, কাটোয়া, কালনা, পূর্বস্থলী উত্তর, পূর্বস্থলী দক্ষিণ ও জামালপুর বিধানসভা। সুভাষবাবু দেখবেন, ভাতার, আউশগ্রাম, কেতুগ্রাম, মঙ্গলকোট, মন্তেশ্বর ও মেমারি। আর অলোকবাবুর ‘নজরদারি’তে থাকবে, গলসি, খণ্ডঘোষ ও রায়না বিধানসভা। কো-অর্ডিনেটদের ব্লকগুলির দিকে নজর রাখা এবং নির্দিষ্ট সময় অন্তর রাজ্য সমন্বয় কমিটিতে রিপোর্ট পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন নেত্রী । রাজ্য সমন্বয় কমিটিতে স্থান পেয়েছেন জেলা পরিষদের সহ-সভাধিপতি তথা জেলার কো-অর্ডিনেটর পদে থাকা দেবু টুডু।তিনি ছাড়াও রাজ্য কমিটিতে স্থান পেয়েছেন বর্ধমান পূর্বের তৃণমূল সাংসদ সুনীল মণ্ডল ও কালনার বিধায়ক বিশ্বজিৎ কুণ্ডু।রাজ্য তৃণমূল যুব কংগ্রেস কমিটিতে স্থান পেয়েছেন জেলা তৃণমূল যুব কংগ্রেসের কার্যকরী সভাপতি শ্রীমন্ত রায় ।

জেলা সভাপতি স্বপন দেবনাথ এদিন বলেন ,“দলের অনুগত কর্মী হিসাবে নেত্রীর নির্দেশ নিষ্ঠার সঙ্গে অক্ষরে অক্ষরে পালন করবো । ” দেবু টুডু বলেন,“নেত্রী আমাকে এতবড় জায়গায় নিয়ে যাবেন তা কল্পনাও করতে পারিনি । নেত্রী যেমন নির্দেশ দিবেন তা দায়িত্বের সঙ্গে পালন করবো ।” যদিও এই কমিটি গঠন নিয়েও বিরোধীরা খোঁচা দিতে ছাড়েননি। বিজেপির রাজ্য কমিটির সদস্য ভীষ্মদেব ভট্টাচার্য বলেন, “যে উদ্দেশে হঠাৎ করে এই কমিটি গঠন করা হল, সেই উদ্দেশ্য সফল হবে না। কারণ মানুষ পরিবর্তন চাইছে । ২১ শে বাংলায় পদ্মই ফুটবে । ”

Related Articles

Back to top button
Close