fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

ভিন জেলা থেকে ফেরৎ এক ব্যক্তিকে স্বাস্থ্য পরীক্ষা ছাড়া গ্রামে ঢুকতে দিলেন না গ্রামবাসীরা

নিজস্ব প্রতিনিধি (ঝাড়গ্রাম): ভিন জেলায় কাজ করতে যাওয়া এক ব্যক্তিকে স্বাস্থ্য পরীক্ষা ছাড়া গ্রামে ঢুকতে দিলেন না গ্রামের বাসিন্দারা। গাড়িতে করে আসা ওই ব্যক্তিকে গাড়ি থেকেই নামতে দেওয়া হয় নি। গ্রামে গাড়ি ঢুকতেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন গ্রামবাসীরা। তবে পরে স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর গ্রামে ঢুকতে দেওয়া হয়। খবর পেয়ে পুলিশ গ্রামে এসে ওই ব্যক্তিকে শারীরিক পরীক্ষার জন্য নিয়ে যায়।এই ঘটনা ঘটেছে বেলপাহাড়ির সন্দাপাড়া অঞ্চলের কেন্দাপাড়া গ্রামে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে এদিন বেলপাহাড়ির কেন্দাপাড়া গ্রামে একটি চারচাকা ভাড়া গাড়িতে ফেরেন গ্রামের সত্যনারায়ন পাল নামে এক ব্যক্তি। স্থানীয় গ্রামবাসীরা জানান ওই হাওড়াতে একটি ফলের দোকানে কাজ করেন ।এদিন সেই গাড়ি গ্রামে ঢোকামাত্র গ্রামবাসীরা ক্ষোভে ফেটে পড়েন । তাকে গাড়ি থেকে নামতে দেওয়া হয় নি।গ্রামবাসীরা দাবি করেন আগে ওই ব্যক্তিকে শারীরিক পরীক্ষা করতে হবে তারপরেই গ্রামে ঢুকতে দেওয়া হবে। পরে এসে ওই ব্যক্তি শারীরিক পরীক্ষার জন্য স্থানীয় স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যায়। জানা গিয়েছে তাকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার কথা বলা হয়েছে।

গ্রামবাসীরা এরপর গ্রামে ঢুকতে দেন ওই ব্যক্তিকে। যাতে ওই ব্যক্তি বাড়ি থেকে বের না হন এবং গ্রামে ঘোরাঘুরি না করেন সেই দিকে নজর রাখবেন গ্রামবাসীরা বলে জানান।

ঝাড়গ্রাম জেলার বাইরে বিভিন্ন জায়গায় অনেকে বাড়ি ফিরছেন। অনেক ক্ষেত্রেই গ্রামবাসীদের বাধায় গ্রামে ঠাঁই মিলছে না।তবে কেন্দাপাড়া গ্রামের বাসিন্দারা সচেতনতার পরিচয় দিয়েছেন।গ্রামবাসীরা স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর ওই ব্যক্তিকে গ্রামেই থাকতে দিয়েছেন।কেন্দাপাড়া গ্রামের বাসিন্দা শিবাজী পাল বলেন ” অনেক দিন গ্রামে ফেরেনি।হাওড়া জেলায় অনেকেই মারা যেতে ওই লোকটি ভয়ে চলে এসেছে।আমাদের গ্রামে এখনো ভাইরাস ঢোকেনি। আমরা চেয়েছিলাম স্বাস্থ্য পরীক্ষা করুন। স্থানীয় স্বাস্থ্য কেন্দ্রে গিয়েছিলাম। তবে আমরা গ্রামবাসীরা চাইছি ওই ব্যক্তি নিয়ম মেনে চোদ্দ দিন যেন ঘরেই থাকে। গ্রামে যেন ঘোরা ফেরা না করেন।”

Related Articles

Back to top button
Close