fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

আর আলোচনা নয়! নির্দেশ অমান্য করলেই ভাঙা হবে অবৈধ নির্মাণ, হুঁশিয়ারি গৌতমের

কৃষ্ণা দাস, শিলিগুড়ি: কোনও আলোচনা নয় কোনও আপোস নয় এ মাসের মধ্যে শিলিগুড়ির বিধান মার্কেটের অবৈধ নির্মানকারীরা নিজে থেকেই তাদের নির্মান সরিয়ে না নিলে এ মাসের যে কোনোদিন গিয়ে প্রশাসনের তরফে আইন অনুযায়ী ভেঙে ফেলা হবে। শনিবার শিলিগুড়ির একটি টুরিস্ট লজে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে এমনটাই জানিয়েছেন রাজ্য পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব। এদিন পর্যটন দফতরের একটি প্রশাসনিক বৈঠকেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলে পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব জানান।

শিলিগুড়ির বিধান মার্কেট শিলিগুড়ি উপকন্ঠে অবস্থিত। সবচেয়ে জনপ্রিয় এই বিধান মার্কেটটি এসজেপডিএর জমিতে গড়ে উঠেছে। হামেশাই এই মার্কেটে অবৈধ নির্মানের অভিযোগ ওঠে। গত বছরও এই মার্কেটে অবৈধ নির্মানের অভিযোগ ওঠে। পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব নিজে দাড়িয়ে থেকে সেই অবৈধ নির্মান ভাঙিয়েছেন। লকডাউনের সুযোগে ফের দোকান সারাই করার নামে বা বিভিন্ন ছল চাতুরী করে ফের অবৈধ নির্মান শুরু করা হয়েছে বলে অভিযোগ ওঠে। সম্প্রতি এসজেডিএর তরফে সোমবারের মধ্যে অবৈধ বা বেআইনি নির্মান ভেঙে ফেলার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। শনিবার এই বিষয় নিয়ে পর্যটন দপ্তরেও একটি প্রশাসনিক বৈঠক হয়। এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব সহ দার্জিলিং জেলার জেলাশাসক এস পুনম বল্লম, এসজেডিএ চেয়ারম্যান বিজয়চন্দ্র বর্মন, এসজেডিএর সিইও পিয়াঙ্কা সীঙঘাল, নান্টু পাল, রঞ্জন সরকার সহ অন্যান্যরা।

বৈঠক শেষে পর্যটন মন্ত্রী গৌতব দেব বলেন, ” বৈঠকে সহমতে সিদ্ধান্ত হয়েছে এসজেডিএর লিখিত অনুমোদন ছাড় যত্রতত্র অবৈধভাবে নির্মান করা যাবে না। রাজ্যসরকার সহ সবাই এটা কঠোরভাবে নিয়েছে। শিলিগুড়ির মানুষ ব্যবসায়ী সবার স্বার্থে সুশৃঙ্খলভাবে বিধানমার্কেট পরিচালিত হওয়া উচিত। কেউ রিপেয়ারিংয়ের নাম করে কেউ নানা ছুতোয় অবৈধভাবে দোকানের নির্মান কাজ শুরু করেছে এই অভিযোগ এসেছে। এরা কয়েক বছর ধরেই তা করে যাচ্ছে। তা আর বরদাস্ত করা যাবে না। আইনি পদক্ষেপ করে অবৈধ নির্মাণ যেকোনো দিন এমাসের মধ্যে ভেঙে দেওয়া হবে।” পাশাপাশি শিলিগুড়ি পুরসভা এলাকাতেও পুরসভার জমি দখল করে অবৈধ নির্মানের অভিযোগ উঠেছে। সেই সমস্ত নির্মানের বিরুদ্ধে পুরসভা যাতে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহন করে তার জন্য পুরসভার কমিশনারকে এ বিষয়ে চিঠি দেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

Related Articles

Back to top button
Close